banglanewspaper

আদালতের অনুমতি ও অভিভাবকদের সম্মতিতে ১৮ বছর বয়সের আগেই মেয়েদের বিয়ে দেয়া যাবে- বাল্যবিবাহ নিরোধ আইনের এমন ধারায় সমর্থন জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়। তিনি জানান, যুক্তরাষ্ট্রেরও ৫০টি রাজ্যের প্রায় প্রতিটিতে এই ধরনের আইন আছে।

গত ২৫ নভেম্বর মন্ত্রিসভায় বাল্যবিবাহ নিরোধ আইন- ২০১৬ এর যে খসড়ায় সম্মতি দেয়, তাতে বলা আছে, কিছু শর্তসাপেক্ষে কোনো মেয়েকে ১৮ এর আগেও বিয়ে দেয়া যাবে।

বাংলাদেশে শিশু বিবাহ আইন সংশোধন নিয়ে নিজের ফেসবুক পেজে সরকারের খড়সাটিতে নিজের সমর্থন জানিয়ে একটি লেখা পোস্ট করেছেন প্রধানমন্ত্রী তনয়। তিনি এতে লিখেন, ‘আমি যুক্তরাষ্ট্রের পুরো ৫০টি রাজ্যের বিবাহ আইন সংক্রান্ত একটি সারসংক্ষেপ শেয়ার করতে চাই, যা বিশ্বের সর্বোচ্চ ল' ইউনিভার্সিটির অন্যতম কর্নেল ল'স্কুল হতে প্রকাশিত হয়েছে। প্রায় সকল রাজ্যেই ১৮ বছরের কম বয়সী মেয়েদের বিয়ে কোর্ট বা তাদের অভিভাবকের সম্মতিতে হতে পারে।’

জয় লিখেন, ‘সর্বনিম্ন বয়সের বিষয়ে তারতম্য রয়েছে, কোনো কোনো রাজ্যে এটি সর্বনিম্ন ১২ বছর এবং একটি রাজ্য রয়েছে তাদের কোনো সর্বনিম্ন বয়সসীমা নেই। গর্ভধারণের বা এ ধরনের বিষয়ও প্রায়ই আদালতের সম্মতিসাপেক্ষে হয়ে থাকে।’

বাল্যবিয়ে নিরোধ আইনের খসড়া নিয়ে যারা সমালোচনা করছেন, তাদের যুক্তিও খণ্ডান সজীব ওয়াজেদ জয়। তিনি লিখেন, ‘এটা যারা আমাদের বর্তমান শিশু বিবাহ আইনের সমালোচনা করছেন তাদের যুক্তির পরিপন্থী হচ্ছে। আমাদের আইনের সংশোধনী শুধুমাত্র ব্যতিক্রমী পরিস্থিতিতে অভিভাবক এবং আদালতের সম্মতিতে ১৮ বছরের কম মেয়েদের বিয়ের অনুমতি দেয়। এটা সেই একই রকম আইন যা সমগ্র যুক্তরাষ্ট্রে রয়েছে। যদি এই ব্যতিক্রমগুলো যুক্তরাষ্ট্রের ক্ষেত্রে ঠিক থেকে থাকে, তবে বাংলাদেশের ক্ষেত্রে ঠিক হবে না কেনো?’।

ফেইসবুক পোস্টে জয় যুক্তরাষ্ট্রের ৫০টি রাজ্যের বিবাহ আইন সংক্রান্ত একটি সারসংক্ষেপও শেয়ার করেন। এই সারসংক্ষেপে ঢুকতে নিচে ক্লিক করুন:

https://www.law.cornell.edu/wex/table_marriage

ট্যাগ: