banglanewspaper

গোলযোগপূর্ণ লিবিয়ার একটি সীমান্তে বিশেষ বাহিনী মোতায়েনের খবর সুস্পস্টভাবে নাকচ করে দিয়েছে রাশিয়া।

রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মেজর জেনারেল ইগোর কোনাশেংকভ আজ (মঙ্গলবার) বলেছেন, “লিবিয়ার সিদি বারানি সীমান্তে রাশিয়ার বিশেষ বাহিনীর কোনো সদস্যকে মোতায়েন করা হয় নি। কিছু পশ্চিমা গণমাধ্যম অজ্ঞাত সূত্রের নাম করে কয়েক বছর ধরে জনগণের মধ্যে উত্তেজনা সৃষ্টির জন্য এ ধরনের কাদা-ছোড়াছুড়ি করছে।”

এর একদিন আগে আমেরিকা ও মিশরের সামরিক বাহিনীর অজ্ঞাত এক সূত্রের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা রয়টার্স বলেছে, লিবিয়ার কাছে মিশরের একটি বিমান ঘাঁটিতে রাশিয়া ২২ জনের বিশেষ বাহিনী ও কয়েকটি ড্রোন মোতায়েন করেছে। এরপর রাশিয়ার পক্ষ থেকে তা নাকচ করা হলো। মিশরের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ও এ খবর প্রত্যাখ্যান করেছে।

রয়টার্সের খবরে বলা হয়েছে, লিবিয়ার সামরিক বাহিনীর কমান্ডার খলিফা হাফতারকে ক্ষমতায় আনার জন্য রাশিয়া এসব সেনা মোতায়েন করে থাকতে পারে। গত ৩ মার্চ বেনগাজির প্রতিরক্ষা ব্রিগেডের হাতে হাফতারের সেনারা মারাত্মক বিপর্যয়ের মুখে পড়েছে। এসব সেনা লিবিয়ার তেল-বন্দরগুলো নিয়ন্ত্রণ করত।

ট্যাগ: