banglanewspaper

ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার মো. মোস্তাফিজুর রহমান (৩২) নামে আহমদিয়া মসজিদের মুয়াজ্জিনকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে আহত করেছে দুর্বৃত্তরা। তিনি দিনাজপুর জেলার অধিবাসী কাহারুল উপজেলার বাসিন্দা।

সোমবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে উপজেলার সরিষা ইউনিয়নের খানপুর এলাকায় অবস্থিত মসজিদের ভেতরে এ হামলার ঘটনা ঘটে। 

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, রাত সাড়ের ৮টার দিকে মসজিদে এশার নামাজের জামাত আয়োজনের প্রস্তুতি চলছিল। ওই সময় পাঁচ-ছয়জনের একটি দুর্বৃত্তের দল মুসল্লির ছদ্মবেশে মসজিদের ঢুকে মুয়াজ্জিনকে কোপাতে শুরু করে। এ ঘটনায় উপস্থিত অন্য মুসল্লিদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়লে দৌড়াদৌড়ি শুরু হয়। রক্তাক্ত অবস্থায় মসজিদের ভেতর মুয়াজ্জিনকে ফেলে রেখে দুর্বৃত্তরা পালিয়ে যায়।

এ সময় গ্রামের লোকজন ধাওয়া করে একজনকে ধরে লোকটিকে গণপিটুনি দিলে সে অচেতন হয়ে পড়ে। সে নেত্রকোনা জেলার কলমাকান্দা উপজেলার বাসিন্দা। তার নাম মো. আব্দুল আহাদ (২০) বলে জানা গেছে। 

স্থানীয় ইউপি সদস্য মো. ইউসিুফ মিয়া বলেন, ইমামকে গুরুতর আহত অবস্থায় ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। মসজিদটি খানপুর গ্রামের রজব আলী ও আইয়ুব আলী নামে দুই ব্যক্তির জমিতে প্রতিষ্ঠিত বলেও জানান তিনি।

ঈশ্বরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বদরুল আলম খান জানান, মুমূর্ষু অবস্থায় মুয়াজ্জিন ও আটক দুর্বৃত্ত আব্দুল আহাদকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। পরে মুয়াজ্জিনের অবস্থার অবনতি হলে  তাকে আজ মঙ্গলবার ভোর পৌনে ৫টার দিকে সেখান থেকে নিয়ে এসে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। 
 

ট্যাগ: