banglanewspaper

তৌহিদুজ্জামান তন্ময়ঃ মশক নিধন কার্যক্রম তিনগুণ বাড়ানো হয়েছে এবং একই সঙ্গে জনসচেতনতা বৃদ্ধির কর্মসূচি ও পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম চলছে বলে জানিয়েছেন ঢাকা উত্তর সিটি মেয়র আনিসুল হক।

মঙ্গলবার (১৭ জুলাই) দুপুরে মোহাম্মদপুর টাউনহল এলাকায় চিকুনগুনিয়া নিয়ন্ত্রণ সংক্রান্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। 

তিনি বলেন, চিকুনগুলিয়ার জন্য নগরবাসী কষ্ট পাচ্ছেন এ জন্য আমরা অত্যন্ত ব্যথিত এবং তাদের সবার জন্য সমবেদনা জানাচ্ছি। আমি চেষ্টা করছি যত দ্রুত সম্ভব চিকুনগুনিয়াকে নিয়ন্ত্রণে আনার জন্য। আমরা প্রত্যক এলাকায় র্যাুলি ও গণসচেতনতা করে যাচ্ছি। 

মেয়র বলেন, ডিএনসিসির প্রতিটি এলাকায় আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তা, স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর এবং স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তাদের নেতৃত্বে চিকুনগুনিয়া নিয়ন্ত্রণের কার্যক্রম ধারাবাহিকভাবে শুরু হয়েছে। এ কার্যক্রম অব্যহত থাকবে।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে মেয়র বলেন, ঢাকা ওয়াসার খাল এবং ড্রেন প্রায় ত্রিশ বছর যাবত ভরাট হয়ে রয়েছে। অনেক খাল ভরাট এবং জবর দখল হয়ে রয়েছে। আমি খাল এবং ড্রেনের দায়িত্ব নিতে রাজি, তবে এগুলো পুনরুদ্ধার এবং পরিষ্কার করে দিতে হবে। কারণ খাল ও ড্রেনগুলো ক্যান্সারের চেয়েও ভয়াবহ অবস্থা। এ ক্যান্সারের দায়িত্ব আমি সরাসরি নিতে রাজি না।

সমাবেশ শেষে আনিসুল হক মেয়রের নেতৃত্বে মোহাম্মদপুর টাউন হল এলাকায় র্যা লি অনুষ্ঠিত হয়। এতে বিভিন্ন স্কুল-কলেজ, মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরাসহ এলাকাবাসী অংশ নেন।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন, প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ডা. এফএমএম সালেহ ভূঁইয়া, আঞ্চলিক নির্বাহি কর্মকর্তা এসএম অজিয়ুর রহমান এবং অত্র এলাকার ওয়ার্ড কাউন্সিলরসহ ডিএনসিসির কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ।

ট্যাগ: