banglanewspaper

নিজস্ব প্রতিনিধি: শিরোনাম দেখে অবাক হচ্ছেন? অবাক হবার মতো ঘটনা কদিন ধরে ফেসবুকের নিউজ ফিডে ঘোরাঘুরি করছে। ছবিতে দেখা গেছে রাতের আধারে কিছু অসাধু মাংস ব্যবসায়ী বেশি লাভের আশায় কুকুর জবাই করে তা বিক্রি করছে।

কুকুর জবাই করে মাংস জোগাড়ের ছবিও ছড়িয়ে পরার ফলে দেশজুড়ে আতঙ্ক ছড়াচ্ছে।

অপু ফারুক নামে একজন তার ফেসবুকে তিনটি ছবিসহ স্টাটার্স দেন। ছবিতে দেখা যায়, একটি আবদ্ধ ঘরের মধ্যে লুঙ্গি পড়া একজন ব্যাক্তি কুকুর জবাই করছে। পাশের একটি ছবিতে দেখা যায় জবাই করা কুকুর থেকে মাংস বানানো হচ্ছে। ছবিতে একজন কমেন্ট করেন, কুকুর মেরেই কি রোড সাইট মাটন বিরিয়ানি খাচ্ছি আমরা। 

আরেক জন কমেন্ট করেন, চিকেনের নামে কাকের মাংস বিক্রি করার অভিযোগ আগেই উঠেছিল। এবার বিফ-মাটনের তকমা সেঁটে কুকুরের মাংস দিয়ে বিরিয়ানি রাঁধা শুরু হয়েছে। 

মনিরুল কমেন্ট করেন, রাজধানীর বিভিন্ন হোটেলে নাকি ঢালাও ভাবে বিক্রি হচ্ছে কুকুরের মাংসের বিরিয়ানি। গত কয়েক দিন ধরে ফেসবুক ওয়ালে এমনই খবর ঘুরপাক খাচ্ছে। সত্যি হলেও তাতে বড় ভয়ঙ্কর ব্যাপার হয়ে দাড়াবে।

এই রকম ছবিযুক্ত পোস্ট অনেকে করছেন তাদের ফেনবুকের ওয়ালে। 

এদিকে রাজধানীর প্রতিটি অলিগলিতে বিরিয়ানির দোকান রয়েছে। সেখানে গরু-খাসির বিরিয়ানির দাম ৯০ থেকে ১২০ টাকা প্লেট তুলনায় অনেক কম দামে কিছু দোকানে মিলছে। অনেক বিরিয়ানি ব্যবসায়ীর অভিযোগ, গরু-খাসির বিরিয়ানি এত কম দামে কিভাবে বিক্রি হয়? অভিযোগ আছে, বেশ কিছু অসাধু রেস্টুরেন্ট বা হোটেল ব্যবসায়ী গরু-খাসির বিরিয়ানির নামে বিক্রি হচ্ছে কুকুরের মাংস দিয়ে রান্না বিরিয়ানি। 

বিশেষজ্ঞরা বলছে, 'গরু-খাসির মাংসের বিরিয়ানি এখনে থেকে হোটেলে বা রেস্টুরেন্টে খাওয়া বর্জন করতে হবে। মাংস বাদ দিয়ে মাছ সবজি দিয়ে খাওয়ায় ভালো। তবে মাংস খেতে হলে অবশ্যই মুরগির মাংস খাওয়া ভালো।’

ফেসবুকের বেশ কিছু কমেন্ট থেকে জানা গেছে, মাংসের জন্য প্রতিটি কুকুর বিক্রি হয় ৩ হাজার থেকে ৪ হাজার টাকায়। আর এসব কাজ চলে রাতের আধারে।

ট্যাগ: