banglanewspaper

ক্রীড়া ডেস্ক : বিশ্বকাপ শুরুর আগেই বড়সড় একটি অঘটন। বিশ্বকাপের বাছাই পর্ব থেকে বাদ পড়েছে সাবেক চারবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ইতালি। দ্বিতীয় লেগের ম্যাচে খেলতে নামার আগে সমীকরণ ছিল বিশ্বকাপের মূলপর্বে জায়গা করে নেয়ার জন্য ইতালিকে জিততে হতো ২-০ গোলের ব্যবধানে। বাংলাদেশ সময় সোমবার মধ্যরাতে দ্বিতীয় রাউন্ডে প্লে-অফ ম্যাচে সুইডেনের বিপক্ষে গোলশূন্য ড্র করে ইতালি।

এর আগে সুইডেনের বিপক্ষে প্রথম লেগের লড়াইয়ে ১-০ গোলে হেরেছিল ইতালি। এর ফলে বিশ্বকাপের চূড়ান্ত পর্বে জায়গা করে নিয়েছে সুইডেন।

পরাজয়ের লজ্জা নিয়ে বিশ্বকাপের বাছাইপর্ব থেকেই বিদায় নিতে হলো সাবেক বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ইতালিকে। খেলা শুরুর আগে থেকেই ইতালিকে নিয়ে একটা শঙ্কা ছিল যে, দলটি বিশ্বকাপে খেলতে পারবে তো? সুইডেনের সঙ্গে জীবন-মরণ ম্যাচে শেষ পর্যন্ত গোল শূন্য হওয়ায় রাশিয়া বিশ্বকাপের বাছাইপর্ব থেকে বাদ পড়লো ইতালি।

খেলায় দুই-তৃতীয়াংশ সময়ই ইতালির নিয়ন্ত্রণে ছিল। প্রথম থেকেই অতিমাত্রায় আক্রমণাত্মক ফুটবল খেললেও ডি-বক্সে এসে যেন খেই হারিয়ে ফেলেন স্ট্রাইকাররা। অন্তত দশটি সুযোগ পেয়েছিলেন তারা। অন্তত দুটি সুযোগ কাজে লাগিয়ে তারা বিশ্বকাপের মূলপর্ব নিশ্চিত করার সম্ভাবনা ছিল। কিন্তু কোনো সুযোগই তারা কাজে লাগাতে পারেনি। এক্ষেত্রে সুইডেনের রক্ষণভাগকেও প্রশংসা করতেই হবে। বিশেষ করে গোলকিপার আজ অসাধারণ খেলেছেন। 

এর আগে প্রথম লেগে সুইডেনের মাঠে প্রথমার্ধের খেলা ছিল গোলশূণ্য। দ্বিতীয়ার্ধে ৬১ মিনিটের মাথায় দলকে এগিয়ে দেন সুইডেনের মিডফিল্ডার জ্যাকব জোহানসন। এই গোলটিই পরে আর শোধ করতে পারেনি ইতালি। মাঠ ছাড়তে হয়েছে ১-০ গোলের হতাশাজনক হার নিয়ে।

উল্লেখ্য, ১৯৩৪ ও ১৯৩৮ সালে টানা দুবার বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল ইতালি। ১৯৮২ সালে তারা জিতেছিল তৃতীয় শিরোপা। আর ২০০৬ সালে শেষবারের মতো বিশ্বকাপ জিতেছিল ইতালি। ১৯৫৮ সালের বিশ্বকাপে দেখা যায়নি ইতালিকে। ১৯৩০ সালের প্রথম বিশ্বকাপে তারা নিজেরাই অংশ নেয়নি।

ট্যাগ: