banglanewspaper

এস. এম. আশরাফুল হক রুবেল, কুড়িগ্রাম: বিএনপি’র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবীর রিজভী আহমেদ বলেছেন, প্রধান বিচারপতিকে গুন্ডামী করে অবসর প্রদানে বাধ্য করেছে সরকার। সরকার নিজেদের ইচ্ছা পুরনে এবং রাজনৈতিক প্রতিপক্ষকে দমন করার জন্য এখন আদালতকে ব্যবহার করবে, কসাই খানায় পরিনত করবে, তাদের বিরুদ্ধের লোকদেরকে শাস্তি দেয়ার জন্য। 

নির্বাচন সংক্রান্ত এক প্রশ্নের জবাবে তিনি আরো বলেন, বিএনপি চেয়ারপারসন যথার্থই বলেছেন শেখ হাসিনার অধিনে কখনই অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন হবে না। শেখ হাসিনার অধীনে নির্বাচন হলে তা হবে হাসিনা মার্কা ও ফেনী মার্কা নির্বাচন। রাত ৩টায় ব্যালট বাক্স পুরন হবে এবং বিরোধী দলের প্রার্থীরা মনোনয়ন জমা দিতে পারবে না। ফলে তার অধীনে ক্ষমতার পালা বদল হবে না। 

তিনি আরো বলেন, আমরা নির্বাচনে যাবো নির্দলীয় সরকারের অধীনে যে সহায়ক সরকার তার অধীনেই আমরা নির্বাচনে যাবো। শেখ হাসিনার অধীনে কোন নির্বাচন সুষ্ঠু ও অবাধ হয়নি তাই আমরা শেখ হাসিনা সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাবো না। তারা রাষ্ট্রিয় শক্তি ব্যবহার করে রক্তাক্ত পরিবেশ তৈরি করবে এবং ভোটারদের ভোট কেন্দ্রে যেতে দেবে না।

এছাড়াও কুড়িগ্রামের দারিদ্রতা প্রসঙ্গে তিনি বলেন,বাংলাদেশের অর্থনৈতিকভাবে দারিদ্রতার সুচকের ৬৪ তম জেলা কুড়িগ্রাম। এখানে কার্তিক মাসে দুর্ভিক্ষ প্রবন অবস্থা বিরাজ করলেও সরকারের দিক থেকে কোন পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে না।

তিনি আজ দুপুরে কুড়িগ্রাম শহরের সরদার পাড়ায় নিজ বাসভবনে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়ে এসব কথা বলেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন বিএনপি জাতীয় নির্বাহি কমিটির সদস্য ও জেলা বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক সাইফুর রহমান রানা, সহাসভাপতি আবু বকর সিদ্দিক, মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তফা, শফিকুল ইসলাম বেবু, যুগ্ন সম্পাদক সোহেল হোসনাইন কায়কোবাদ, সাংগাঠনিক সম্পাদক নুর ইসলাম নুরু,ইদ্রিস আলী, মোসলেম উদ্দিন মোল্লা দুলাল, যুবদল সম্পাদক নাদিম আহমেদ সহ দলীয় নেতাকর্মীরা ।
 

ট্যাগ: