banglanewspaper

আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় রাষ্ট্রের আইন, নির্বাহী ও বিচার বিভাগের মধ্যে পারস্পরিক সহযোগিতার মাধ্যমেই কেবল একটি দেশের উন্নয়ন হতে পারে বলে মন্তব্য করেছেন নবনিযুক্ত প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন।

তিনি আইন, নির্বাহী ও বিচার বিভাগ সম্পর্কে বলেন, যেখানে এই তিনটি অঙ্গের কাজের মধ্যে সমন্বয়ের অভাব থাকে, সেখানে উন্নয়ন ব্যাহত হয়। এই তিনটি অঙ্গের কাজের মধ্যে যেন সমন্বয় রক্ষা করা যায়, সেজন্য আমি সবসময় চেষ্টা করবো। একইসঙ্গে সুপ্রিম কোর্ট যেন সংবিধানের কাঠামোর মধ্যে থেকে সংবিধান অনুসারে তার নিজ দায়িত্ব পালন করে সেটিও আমি নিশ্চিত করতে চেষ্টা করবো।

রোববার প্রধান বিচারপতি হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণের পর অ্যাটর্নি জেনারেল ও সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির (বারের) সভাপতির সম্বর্ধনা জবাবে এমন বক্তব্য দেন তিনি।

আইনজীবীদের উদ্দেশে নতুন এ প্রধান বিচারপতি বলেন, আশা করি হাইকোর্ট ও আপিল বিভাগে আপনারা যেভাবে আমাকে সহযোগিতা করেছেন ঠিক একইভাবে এখনও আমার দিকে সহযোগিতার হাত প্রসারিত করবেন। বার (আইনজীবী সমিতি) ও বেঞ্চের পারস্পরিক শ্রদ্ধা, বিশ্বাস এবং সহযোগিতা একটি সমৃদ্ধ বিচার বিভাগের ভিত্তি গড়ে তুলবে বলে আমি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি।

তিনি বলেন, সুপ্রিম কোর্ট যেন সংবিধানের কাঠামোর মধ্যে থেকে সংবিধান অনুসারে তার নিজ দায়িত্ব পালন করে সেটিও আমি নিশ্চিত করতে চেষ্টা করবো।

আদালতের ভাবমূর্তির বিষয়ে প্রধান বিচারপতি বলেন, আমাদের এমনভাবে আদালতের ভাবমূর্তি গড়ে তুলতে হবে যেন আদালত প্রাঙ্গনে প্রবেশ করার সঙ্গে সঙ্গে শক্তিমান ও দুর্বল, ধনী-গরীব সবার মধ্যে এই বিশ্বাস জন্মে যে তারা সবাই সমান। আদালত থেকে তারা ন্যায় বিচার পাবেন। এতে করে আদালতের প্রতি মানুষের বিশ্বাস ও আস্থা দৃঢ় হবে।

ট্যাগ: Banglanewspaper উন্নয়ন প্রধান বিচারপতি