banglanewspaper

নড়াইল প্রতিনিধি: নড়াইলের লোহাগড়ায় চরমপন্থী সংগঠন জনযুদ্ধের পরিচয়ে গার্মেন্টস ব্যবসায়ীর কাছে পাঁচ লাখ টাকা চাঁদা দাবি ও হত্যার হুমকি দেয়া হয়েছে।

শুক্রবার (৯ মার্চ) বিকেল ৩টা ১৯ মিনিটে ০১৯৪২-০৮১৭৪৯ মোবাইল ফোন থেকে গামেন্টস ব্যবসায়ী সেলিমুজ্জামান মোল্যার ব্যবহৃত ০১৭১৩-২১১২৪০ এই নাম্বারে চরমপন্থী পরিচয়ে পাঁচ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করা হয়। সেলিমুজ্জামানের বাড়ি নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার কোটাকোল গ্রামে। তিনি ঢাকায় প্রতিষ্ঠিত গার্মেন্টস ব্যবসায়ী বলে সাধারণ ডায়েরিতে (জিডি) উল্লেখ করেছেন।

এ চাঁদা দাবির ঘটনায় সেলিমুজ্জামান ওইদিন রাতে লোহাগড়া থানায় জিডি করেছেন। জিডি নম্বর ৩৪৪, তারিখ: ০৯.০৩.২০১৮। তবে, সংবাদকর্মীরা বিষয়টি শনিবার জানতে পারেন। 

লোহাগড়া থানার জিডি সূত্রে জানা যায়, ব্যবসায়িক কারণে পরিবার নিয়ে ঢাকায় বসবাস করেন সেলিমুজ্জামান মোল্যা। লোহাগড়ার কোটাকোলের গ্রামের বাড়ি তার মা বসবাস করেন। মাকে দেখার জন্য শুক্রবার বিকেল ৩টা ৫মিনিটে কোটাকোলের বাড়িতে আসেন ব্যবসায়ী সেলিমুজ্জামান। পরে ৩টা ১৯ মিনিটে জনযুদ্ধকর্মী পরিচয় দিয়ে মোবাইল ফোনে পাঁচ লাখ টাকা দাবি করা হয়। জনযুদ্ধের বসের কথা বলে এ টাকা চাঁদা চাওয়া হয়েছে। দাবিকৃত টাকা পরিশোধ না করলে সেলিমুজ্জামানের পরিণতি লোহাগড়া দিঘলিয়া ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) চেয়ারম্যান শেখ লতিফুর রহমান পলাশ হত্যাকান্ডের মতো হবে বলে হুমকি দেয়া হয়েছে।

মোবাইল ফোনালাপ সংরক্ষিত করা হয়েছে। জানা যায়, গত ১৫ ফেব্রুয়ারি দুপুর পৌনে ১২টার দিকে লোহাগড়া উপজেলা পরিষদ চত্বরে ইউপি চেয়ারম্যান পলাশকে গুলি ও কুপিয়ে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা।  

লোহাগড়া থানার এসআই রানা প্রতাপ বলেন, মোবাইল ফোনে চাঁদা দাবির বিষয়টি সনাক্ত করার চেষ্টা চলছে। শনিবার বিকেল সাড়ে ৫টা পর্যন্ত হুমকিদাতাকে খুঁজে পাওয়া যায়নি।

ট্যাগ: Banglanewspaper নড়াইল গার্মেন্টস ব্যবসায়ী চাঁদা দাবি হত্যার হুমকি