banglanewspaper

ইউরোজোনে থাকা, না থাকার টানাপোড়েনের মধ্যেই রাশিয়ার সঙ্গে গ্যাস পাইপলাইনের প্রাথমিক চুক্তি সম্পন্ন করেছে অর্থনৈতিক ধসের মুখে পড়া গ্রিস। গতকাল রাশিয়ার জ্বালানি মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র অলগা গোলান্তের বরাত দিয়ে এ খবর জানিয়েছে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম। অলগা বলেন, এ চুক্তিতে উভয় দেশেরই সমান অংশীদারিত্ব থাকবে।

এদিকে, গ্রিসের ব্যাংকগুলো থেকে নিজেদের জমা অর্থ তুলে নিতে শুরু করেছে গ্রাহকরা। গত সপ্তাহে কয়েকশ কোটি ইউরো তুলে নেওয়া হয়েছে বলে আন্তর্জাতিক এক সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে। প্রতিবেদনে বলা হয়, শুধু গত সপ্তাহেই গ্রাহকরা ব্যাংকগুলো থেকে ৩০০ কোটি ইউরো (প্রায় সাড়ে ৩০০ কোটি মার্কিন ডলার) প্রত্যাহার করে নিয়েছে। দেশটির ঋণ সংকট নিরসনে ইউরোজোনের বেধে দেওয়া সময়সীমা শেষ হয়ে আসায় গ্রাহকরা অর্থ প্রত্যাহার করে নিতে শুরু করেছে বলে ওই প্রতিবেদনে দাবি করা হয়। আগামী সোমবার ইউরোজোনের সদস্য রাষ্ট্রগুলোর একটি জরুরি বৈঠক ডাকা হয়েছে। অর্থনৈতিক ধস ঠেকাতে করণীয় সম্পর্কে আলোচনা করতেই এ বৈঠকের আহ্বান করা হয়েছে। ইউরোপীয় কেন্দ্রীয় ব্যাংকের উদ্যোগেও পরবর্তীতে একটি বৈঠক ডাকা হয়েছে। এর আগে বৃহস্পতিবার ইউরোজোনের অর্থমন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠকে সংকট নিরসনে কোনো সমাধানে আসা যায়নি বলে জানিয়েছেন ইউরোগ্রুপের অর্থমন্ত্রীদের প্রধান জেরোন ডেইসোব্লুম। বৈঠক শেষে তিনি বলেন, আলোচনায় খুব কমই অগ্রগতি হয়েছে। এখন পর্যন্ত কোনো চুক্তির আশা পাওয়া যায়নি। অর্থনৈতিক ধস থেকে রেহাই পেতে নতুন কোনো চুক্তি সম্পন্ন করতে গ্রিসের হাতে দুই সপ্তাহেরও কম সময় রয়েছে। এএফপি।

ট্যাগ: