banglanewspaper

পাখিকে উড়তে দেখে মানুষের মধ্যে ওড়ার আকাঙ্ক্ষা সেই থেকে বিমানের আবিষ্কার। সময় ও প্রয়োজনের সঙ্গে তাল মিলিয়ে প্লেন, হেলিকপ্টার, তথা উড়োযানের আধুনিকায়নের চেষ্টা এখনো চলমান। বর্তমানে চলছে জ্বালানি হিসেবে সৌরশক্তি ও বিদ্যুৎকে কাজে লাগানোর প্রচেষ্টা। এরই ধারায় চলতি বছর ৯ মার্চ আরব আমিরাতের রাজধানী আবুধাবির আল বাতেন এক্সিকিউটিভ বিমানবন্দর থেকে বিশ্বভ্রমণের উদ্দেশে আকাশে উড়াল দিয়েছে সৌরচালিত প্লেন \'সোলার ইমপালস-২\'। এবার চীন তৈরি করল বৈদ্যুতিক প্লেন। দেশটির শেনইয়াং অ্যারোস্পেস বিশ্ববিদ্যালয় ও লিয়াওনিং প্রদেশে অবস্থিত লিয়াওনিং জেনারেল এভিয়েশন একাডেমির যৌথ প্রচেষ্টায় প্লেনটি তৈরি করা হয়েছে। লিয়াওনিং রুইশিয়াং জেনারেল এভিয়েশন কোম্পানি লিমিটেডকে বৃহস্পতিবার দুটি বৈদ্যুতিক যাত্রীবাহী প্লেন সরবরাহ করা হয়েছে বলে জানিয়েছে স্থানীয় সংবাদমাধ্যম। এই প্লেন দুটিই বিশ্বের প্রথম বৈদ্যুতিক প্লেন। বিএক্সই সিরিজের যাত্রীবাহী এই প্লেন দুটি ডানার মোট দৈর্ঘ্য ১৪.৫ মিটার। ২৩০ কেজি ভারবহনে সক্ষম এই প্লেন ৩ হাজার মিটার উঁচুতে উঠতে পারে। এএফপি।

ট্যাগ: