banglanewspaper

প্রশান্ত কুমার রায়, কালীগঞ্জ (লালমনিরহাট) প্রতিনিধি: লালমনিরহাট জেলার কালীগঞ্জে আদালতের নির্দেশে মৃত্যুর সাড়ে ৩ মাস পর কবর থেকে মোহিদ হোসেন নামে ৫ বছরের শিশুর লাশ উত্তোলন করেছে পুলিশ।

সোমবার(১৬ জুলাই) নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আবু সাঈদের উপস্থিতিতে উপজেলার কাকিনার জেলে পাড়ার একটি কবর থেকে শিশু মোহিদের লাশ উত্তোলন করা হয়।

জানা গেছে, ৪ এপ্রিল ২০১৮ বুধবার বিকালে শিশু মোহিদের বাবা অনেক খুঁজাখুজি করলে তাকে ওহেদ আলীর পুকুরে ভেসে থাকতে দেখে চিৎকার করে মোহিদের বাবা আলমগীর হোসেন। পরে স্থানীয়ারা শিশু মোহিদের মরদেহ উদ্ধার করে রাতেই লাশটি দাফন করে। বেশ কয়েকদিন পরে মোহিদের মা শাহেরা আক্তার ময়না তার সৎ মা ডালিয়া বেগমের আচারন দেখতে পেয়ে মোহিদের বাবা আলমগীর হোসেনকে জানায় তালাক প্রাপ্ত স্ত্রী ডালিয়া বেগম পূর্ব শত্রুতার কারনে তার ছেলে মোহিদকে হত্যা করতে পারে। ডালিয়া বেগমকে আলমগীর হোসেন সন্দেহ করতে শুরু করে। বেশ কয়েকদিন পর ২০ এপ্রিল কাকিনা ইউনিয়নের চেয়ারম্যানসহ ডালিয়াকে জিজ্ঞাসা করা হলে ডালিয়া বেগম  কথা না বলেই চলে যেতে ধরলে তাঁকে আটক করে আবারও জিজ্ঞাসা করলে সে স্বীকার করে বিস্কুটের সাথে ওষুধ দিয়ে  সৎ ছেলে মোহিদকে হত্যা করে পুকুরে ফেলে দিয়েছে।

পরে আলমগীর হোসেনের তালাক প্রাপ্তা স্ত্রীর নামে লালমনিরহাট আদালতে একটি হত্যা মামলা করলে প্রায় ১ মাস পরে মোহিদের হত্যাকারী সৎ মাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। 

এ বিষয়ে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা কালীগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) বাদল কুমার জানান, আদালতের নির্দেশে সোমবার দুপুরে ম্যাজিস্ট্রেটের উপস্থিতিতে মোহিদের লাশ কবর থেকে উত্তোলন করে ময়না তদন্তের জন্য লালমনিরহাট মর্গে পাঠানো হয়েছে। 

ট্যাগ: banglanewspaper লালমনিরহাট কালীগঞ্জ