banglanewspaper

বেনাপোল প্রতিনিধি: যশোরে ধর্ষণের পর হত্যার অভিযোগে আটক ইরাদ আলী গণপিটুনিতে নিহত হয়েছে। সোমবার বিকালে স্থানীয় জনগণ গণপিটুনি দিয়ে তাকে পুলিশের হাতে সোপর্দ করে। পরে বিক্ষুদ্ধ জনতা তার বাড়িঘর ভাংচুর করে অগ্নিসংযোগ করে।

নিহত ইরাদ বিরুদ্ধে এক মহিলাকে ধর্ষণের পর হত্যার অভিযোগ ছিল।

পুলিশ জানায়, সদর উপজেলার জগন্নাথপুর গ্রামের মতলেব খানের স্ত্রী মেহেরুননেছাকে ভাত রান্না করে দেওয়ার কথা বলে সোমবার দুপুরে নিজ বাড়িতে নিয়ে যায় ইরাদ। এরপর থেকে মেহেরুননেছা নিখোঁজ ছিল। বিকালে স্থানীয় জনগণ ইরাদকে আটক করে গণপিটুনি দেয়।

পরে সে মেহেরুনকে হত্যার কথা স্বীকার করে। তার স্বীকারোক্তিতে সন্ধ্যায় ইরাদের রান্নাঘর থেকে মেহেরুনের বস্তাবন্দী লাশ উদ্ধার করে পুলিশকে খবর দেয় স্থানীয়রা।

রাতেই পুলিশ ইরাদকে হেফাজতে নিয়ে থানায় নেয়ার পথে মারা যায় সে। পরে নিহতের মরদেহ ময়না তদন্তের জন্য সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায় তারা।

ট্যাগ: Banglanewspaper যশোর ধর্ষণ