banglanewspaper

হালের ক্রেজ কিলিয়ান এমবাপ্পে। রাশিয়া বিশ্বকাপে সেরা যুব ফুটবলার হয়েছেন তিনি। ১৯৫৮ সালে পেলের কীর্তি ছুঁয়ে ফেলা উনিশ বছর বয়সি এক ফরাসি স্ট্রাইকার।

বিশেষজ্ঞদের মতে, মাঠে এমবাপ্পের গতি ছিল আর সব খেলোয়াড় থেকে আলাদা, ক্ষিপ্র। তবে এবার মাঠে নয় মাঠের বাইরেও এমবাপ্পে দেখালেন দারুন কীর্তি।

ফ্রান্সের এ তরুণ স্ট্রাইকার রাশিয়া বিশ্বকাপ থেকে উপার্জিত সমস্ত অর্থই দান করেছেন ‘প্রিমিয়ার ডি করডি’ নামক এক দাতব্য সংস্থাকে।সংস্থাটি প্রতিবন্ধী শিশু ও হাসপাতালে ভর্তি শিশুদের নিয়ে কাজ করে।

খেলাধুলা বিষয়ক ম্যাগাজিন ‘স্পোর্টস ইলাসট্রেটেড’ অনুসারে, এমবাপ্পে রাশিয়া বিশ্বকাপে ম্যাচ প্রতি ১৭ হাজার পাউন্ড পেয়েছেন। বিশ্বকাপজয়ী ফ্রান্স দলের সদস্য হিসেবে পেয়েছেন আরও ২ লাখ ৬৫ হাজার পাউন্ড।

সেই হিসেবে বিশ্বকাপ থেকে এমবাপ্পের মোট প্রাপ্ত অর্থ দাঁড়ায় ৩ লাখ ৮৪ হাজার পাউন্ড, যার পুরোটাই তিনি দান করেছেন। প্রিমিয়ার ডি করডি সংস্থার মুখপাত্র সেবাস্তিয়ান রাফিন বলেছেন, ‘এমবাপ্পে অসাধারণ একজন মানুষ। যখনই তিনি সুযোগ পান, উদার মনে আমাদের সাহায্য করেন। আমরা তার নিকট চিরকৃতজ্ঞ।’

মাঠ ও মাঠের বাইরে এমবাপ্পের এমন পারফরম্যান্সে ফুটবলবোদ্ধারা বলছেন, ফ্রান্সের দশ নম্বর জার্সির ১৯ বছর বয়সি এ তরুণ এখন বিশ্বের সবচেয়ে প্রতিশ্রুতিবান ফুটবলারের অন্যতম।

ট্যাগ: বিশ্বকাপ এমবাপ্পে