banglanewspaper

ইন্দোনেশিয়ার লম্বোক দ্বীপে এক সপ্তাহের মাথায় দ্বিতীয় দফা ভূমিকম্পে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৮২ জনে দাঁড়িয়েছে।

বিবিসি জানিয়েছে, রোববার ৭ মাত্রার এ ভূমিকম্পে ধসে পড়েছে বহু বাড়িঘর, বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে বিদ্যুৎ ব্যবস্থা। কম্পন অনুভূত হয়েছে কাছের বালি দ্বীপেও।

যুক্তরাষ্ট্রের ভূতাত্ত্বিক জরিপ সংস্থা (ইউএসজিএস) বলছে, এ ভূমিকম্পের উৎপত্তিস্থল ছিল দ্বীপের উত্তর উপকূলে ভূপৃষ্ঠ থেকে ১০ কিলোমিটার গভীরে।

ভূমিকম্পের পর সুনামি সতর্কতা জারি করা হলেও দুই ঘণ্টা পর তা তুলে নেওয়া হয়।

নয়নাভিরাম সৈকত ও হাইকিং ট্রেইলের জন্য লম্বোক পর্যটকদের কাছে অত্যন্ত জনপ্রিয়। মাত্র এক সপ্তাহ আগে এই দ্বীপে ৬ দশমিক ৪ মাত্রার ভূমিকম্পে অন্তত ১৬ জনের মৃত্যু হয়।

এবারের ভূমিকম্পে দ্বীপের প্রধান শহর মাতরমের ভবনগুলো সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। সেখানে শত শত মানুষ আহত হয়েছেন বলে উদ্ধারকর্মীরা জানিয়েছেন।

এক টুইট বার্তায় ইন্দোনেশিয়ার দুর্যোগ নিয়ন্ত্রণ সংস্থার মুখপাত্র সুতোপ পুরাও নাগরোহো জানিয়েছেন, ভূমিকম্পে ৮২ জন ও শতাধিক মানুষ আহত হয়েছেন। আর সহস্রাধিক ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত হয়েছে।

স্থানীয় দুর্যোগ সংস্থার প্রধান মুহাম্মদ রুম জানিয়েছেন, বিধ্বস্ত ঘরবাড়ির নিচে চাপা পড়েই বেশিরভাগ মানুষের মৃত্যু হয়েছে।

গত সপ্তাহেই লুম্বকে ৬ দশমিক ৪ মাত্রার ভূমিকম্পে ১৭ জন নিহত ও ১৬০ জন আহত হন। আর শতাধিক ভবন ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

ট্যাগ: banglanewspaper ইন্দোনেশিয়া ভূমিকম্প