banglanewspaper

পবিত্র ঈদুল আযহা উপলক্ষে ট্রেনের আগাম টিকিট বিক্রি শুরু হয়েছে। বুধবার সকাল আটটায় ১৭ আগস্টের ট্রেনের টিকিট বিক্রির মধ্য দিয়ে অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু হয়েছে। এবার ছয় দিন আগাম টিকিট বিক্রি করবে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ।

প্রতিবারের মতো এবারও দশ দিন আগে থেকে ট্রেনের আগাম টিকিট বিক্রি শুরু করেছে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ। ৯ আগস্ট বিক্রি হবে ১৮ আগস্টের টিকিট। এছাড়া ১০, ১১ ও ১২ আগস্টে পর্যায়ক্রমে ১৯, ২০ এবং ২১ আগস্টের টিকিট পাওয়া যাবে।

এই দিনগুলোতে ঢাকা ও চট্টগ্রাম স্টেশন থেকে বিশেষ ব্যবস্থাপনায় সকাল আটটা থেকে টিকিট বিক্রি শুরু হবে। ঢাকা স্টেশনে ২৬টি কাউন্টার খোলা রাখা হবে। এর মধ্যে ২টি কাউন্টার নারীদের জন্য সংরক্ষিত থাকবে।

একইভাবে ১৫ আগস্ট থেকে ঈদ ফেরত যাত্রীদের জন্য ট্রেনের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু হবে। ঈদ ফেরত অগ্রিম টিকিট রাজশাহী, খুলনা, রংপুর, দিনাজপুর ও লালমনিহাট স্টেশন থেকে বিশেষ ব্যবস্থাপনায় সকাল আটটা থেকে টিকিট বিক্রি শুরু হবে। ফিরতি টিকিট ১৫ আগস্টে পাওয়া যাবে ২৪ আগস্টের টিকিট। একইভাবে ১৬, ১৭, ১৮ ও ১৯ আগস্টে যথাক্রমে পাওয়া যাবে ২৫, ২৬, ২৭ ও ২৮ আগস্টের টিকিট।

ঈদের টিকিট বিক্রি শুরুর দিন ভোরে কমলাপুরে গিয়ে দেখা যায় যাত্রীদের ভিড়। টিকিটের প্রত্যাশায় বিভিন্ন রুটের যাত্রীরা রাত থেকেই লাইনে দাঁড়িয়ে বা বসে আছেন। সকাল আটটা থেকে টিকিট বিক্রি শুরু হলেও অনেকে রাত থেকেই লাইনে দাঁড়িয়ে অপেক্ষায় থাকেন।

অপেক্ষমাণ মানুষের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, অগ্রিম টিকিট পেতে তাদের অনেকেই মঙ্গলবার রাত থেকেই স্টেশনে হাজির হয়েছেন। এদিকে সুশৃঙ্খলভাবে অগ্রিম টিকিট দিতে স্টেশনে দায়িত্ব পালন করছে রেল পুলিশ।

ঈদে যাত্রী চাপ সামলাতে নয় জোড়া বিশেষ ট্রেন থাকবে। বিশেষ ট্রেনের মধ্যে দেওয়ানগঞ্জ স্পেশাল চলবে ঢাকা-দেওয়ানগঞ্জ-ঢাকা রুটে। (ঈদের আগে ১৮, ১৯, ২০ ও ২১ আগস্ট এই ৪ দিন এবং পরে ২৩ আগস্ট থেকে ২৯ আগস্ট ৭ দিন)।

এছাড়া চাঁদপুর স্পেশাল ১: চট্টগ্রাম-চাঁদপুর-চট্টগ্রাম (ঈদের আগে ১৮, ১৯, ২০ ও ২১ আগস্ট ৪ দিন এবং ঈদের পরে ২৪ আগস্ট থেকে ৩০ আগস্ট ৭ দিন), চাঁদপুর স্পেশাল ২: চট্টগ্রাম-চাঁদপুর-চট্টগ্রাম (ঈদের আগে ১৮, ১৯, ২০ ও ২১ আগস্ট ৪ দিন এবং ঈদের পরে ২৪ আগস্ট থেকে ৩০ আগস্ট ৭ দিন), রাজশাহী স্পেশাল: রাজশাহী-ঢাকা-রাজশাহী (ঈদের আগে ১৮, ১৯ ও ২০ আগস্ট ৩ দিন এবং ঈদের পরে ২৪ আগস্ট থেকে ৩০ আগস্ট ৭ দিন)। দিনাজপুর স্পেশাল: দিনাজপুর-ঢাকা-দিনাজপুর (ঈদের আগে ১৮, ১৯ ও ২০ আগস্ট ৩ দিন এবং ঈদের পরে ২৪ আগস্ট থেকে ৩০ আগস্ট ৭ দিন) চলবে।

লালমনিরহাট স্পেশাল: ঢাকা-লালমনিরহাট-ঢাকা (ঈদের আগে ১৮, ১৯, ২০ ও ২১ আগস্ট ৪ দিন এবং ঈদের পরে ২৪ আগস্ট থেকে ৩০ আগস্ট ৭ দিন), খুলনা এক্সপ্রেস: খুলনা-ঢাকা-খুলনা (ঈদের আগে ২১ আগস্ট একদিন), শোলাকিয়া স্পেশাল-১: ভৈরববাজার-কিশোরগঞ্জ-ভৈরববাজার রুটে ঈদের দিন, শোলাকিয়া স্পেশাল-২: ময়মনসিংহ-কিশোরগঞ্জ-ময়মনসিংহ রুটে ঈদের দিন চলবে।

বাংলাদেশ রেলওয়েতে প্রতিদিন ২ লাখ ৬০ হাজার যাত্রী চলাচল করে। তবে ঈদুল আজহা উপলক্ষে দৈনিক ৩ লাখ যাত্রী চলাচল করার ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন রেলমন্ত্রী মো. মুজিবুল হক। সেইসঙ্গে সুষ্ঠ ও নিরাপদে ট্রেন চলাচলের সুবিধার্থে ট্রেন পরিচালনার সঙ্গে সম্পৃক্ত রেলওয়ে কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের সকল প্রকার ছুটি বাতিল করা হবে।

ট্যাগ: Banglanewspaper ট্রেনের টিকিট বিক্রি শুরু