banglanewspaper

সারাদেশে একযোগে চলছে বিশেষ ট্রাফিক সপ্তাহ। ট্রাফিক সপ্তাহ শুরুর পর এখন পযর্ন্ত আইনঅমান্য করায় ১৫ হাজার ৩৮৯ জন চালকের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিয়েছে পুলিশ।

আর তিনদিনে ফিটনেস, মেয়াদোত্তীর্ণ কাগজপত্র, ড্রাইভিং লাইসেন্সসহ নানা অপরাধে  ৫৮ হাজার ৫৪৯ টি যানবাহনের বিরুদ্ধে মামলা দিয়েছে। পুলিশ সদর দফতরের এক হিসাব বলছে, এই সকল  অনিয়মের কারণে আদায় করা হয়েছে মোট ১ কোটি ৯১ লাখ ৯০ হাজার ৯৫ টাকা। পাশাপাশি আটক করা হয় ১ হাজার ৮৭০ টি যানবাহন।

পুলিশ সদরদফতরের এআইজি  সোহেল রানা বলেন, দেশের ছয়টি মেট্রোপলিটন এলাকা, আটটি রেঞ্জ এবং হাইওয়ে রেঞ্জে ট্রাফিক সপ্তাহ ২০১৮-এর বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে এসব গাড়ি ও চালককে আটক এবং জরিমানা করা হয়েছে।

পুলিশ সদরদফতর থেকে পাওয়া সর্বশেষ তথ্য বলছে, মঙ্গলবার (৭ আগস্ট) সারা দেশে ১৭ হাজার ৭২৭টি যানবাহনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। আটক করা হয়েছে ৫৭৭টি গাড়ি। আর ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে ৬ হাজার ৬৭২ জন চালকের বিরুদ্ধে। এ সকল অপরাধে এই দিনে জরিমানা আদায় করা হয় ৫৫ লাখ ৫৮ হাজার ২২৫ টাকা।

আর রাজধানীতে এই অভিযানের অংশ হিসেবে ৩ হাজার ৯০৯ টি মামলা করেছে ডিএমপি’র ট্রাফিক বিভাগ। আটক করেছে ৭৪ টি মোটরসাইকেল।

এর আগের দিন সোমবার (৬ আগস্ট) সারা দেশে ২১ হাজার ৩৩৬টি যানবাহনের বিরুদ্ধে মামলা এবং ৮২৪টি গাড়ি আটক করে। ব্যবস্থা গ্রহণ করে ৫ হাজার ৭৬৫ জন চালকের বিরুদ্ধে। ঐ দিন জরিমানা আদায় করে  ৬৭ লাখ ১৩ হাজার ২৫০ টাকা।

শুধু ডিএমপি এলাকায় অভিযান করে ৩ হাজার ২৪০ টি মামলা করে পুলিশ। আটক করে ৫২ টি মোটর সাইকেল।

এদিকে  ট্রাফিক সপ্তাহের  শুরুর দিন দেশজুড়ে ১৯ হাজার ৪৮৬টি যানবাহনের বিরুদ্ধে মামলা এবং ৪৬৯টি গাড়ি আটক করা হয়। আর ব্যবস্থা গ্রহণ করে  ২ হাজার ৯৫২জন চালকের বিরুদ্ধে। রোববার এই সব ঘটনায় জরিমানা আদায় করে ৬৯ লাখ ১৮ হাজার ৬২০ টাকা।

প্রথম দিনে ঢাকা শহরে  ৩ হাজার ৬৫১ টি মামলা করে ডিএমপি। আটক করে  ৬৮টি মোটর সাইকেল। আগামী ১১ আগস্ট পর্যন্ত ট্রাফিক সপ্তাহ চলবে জানান পুলিশ কর্মকর্তারা।

গত ২৯ জুলাই রাজধানীর বিমানবন্দর সড়কে বাস চাপায় দুই শিক্ষার্থী নিহত হয়।  প্রতিবাদে সেদিন থেকেই শিক্ষার্থীরা রাজধানীর বিভিন্ন রাস্তায় অবস্থান কর্মসূচি পালন করে। এক পর্যায়ে ট্রাফিক পুলিশের কাজ হাতে নেয়। শিক্ষার্থীদের ঘরে ফেরার অনুরোধ করে  ট্রাফিক পুলিশ সপ্তাহ ঘোষণা করে পুলিশ।

ট্যাগ: banglanewspaper ট্রাফিক