banglanewspaper

সার্ভারে যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে রাজধানীর কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশনে আপাতত ট্রেনের অগ্রিম টিকেট বিক্রি বন্ধ রয়েছে। এতে লাইনে দাঁড়িয়ে থাকা টিকেট প্রত্যাশীরা ভোগান্তিতে পড়েছেন।

শনিবার (১১ আগস্ট) সকাল সাড়ে ১০টা থেকে স্টেশন সার্ভারে ত্রুটি দেখা দেয়। কম্পিউটার থেকে প্রিন্ট দিতে না পারায় টিকিট বিক্রি বন্ধ রাখার কথা জানান বিক্রয়কর্মীরা।

এ সময় কাউন্টারের সামনে অপেক্ষায় থাকা টিকিট প্রত্যাশীরা হৈ-হল্লা শুরু করেন। টিকেট বিক্রি ফের কখন শুরু হবে তা সুনির্দিষ্টভাবে বলতে পারছে না রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ।

আজ সকাল ৮টা থেকে টিকেট বিক্রি শুরু হয়েছিল। দেওয়া হচ্ছিল ২০ আগস্টের টিকিট। শুক্রবারের (১০ আগস্ট) মতো আজও মোট ৩৫টি আন্তঃনগর ট্রেনের জন্য ২৬ হাজার ৮৯৫টি টিকিট বিক্রি করা হবে বলে জানা গিয়েছিল। মোট ৩৫টি আন্তঃনগর ট্রেনের জন্য ২৬ হাজার ৮৯৫টি টিকিট বিক্রি হবে।

কমলাপুর স্টেশন ম্যানেজার সীতাংশু চক্রবর্তী বলেন, সার্ভার ডাউন হওয়ায় কারণে টিকিট বিক্রি বন্ধ আছে। আমাদের টিম কাজ করছে। আশা করছি দ্রুত সমাধান হবে। সমস্যার সমাধান দ্রুতই আবার টিকেট বিক্রি শুরু হবে বলে জানান তিনি।

কাউন্টারের সামনে দাড়ানো টিকেট প্রত্যাশী সাদেকুল ইসলাম বলেন, সারারাত জেগে আছি টিকেটের জন্য এখন শুনতেছি সার্ভার টাউন। তাই টিকিট বিক্রি বন্ধ। ফলে ভোগান্তি আরো বেড়ে গেল।

শনিবার (১১ আগস্ট) চতুর্থ দিনের মত ট্রেনের অগ্রিম টিকিট বিক্রির করার হচ্ছে আজ। আজ দেয়া হচ্ছে ২০ আগস্টের টিকিট। অগ্রিম টিকিট পেতে গতকাল রাত থেকেই অনেকে কমলাপুর রেল স্টেশনে ভিড় জমিয়েছেন।

ঈদের অগ্রিম টিকিট পেতে কমলাপুর এখন যেন এক জনসমুদ্র। টিকিট পেতে কমলাপুরে সকাল থেকেই ছিল মানুষের উপচে পড়া ভিড়। ২৬টি কাউন্টার থেকে এই টিকিট দেয়া হচ্ছে। প্রতিটি কাউন্টারের সামনে থেকে টিকিট প্রত্যাশী মানুষের দীর্ঘ লাইন একে-বেকে গিয়ে ঠেকেছে স্টেশনের বাহিরের দিকে।

ট্যাগ: banglanewspaper ট্রেন