banglanewspaper

মো. নাসির উদ্দিন নকলা (শেরপুর) : শেরপুর জেলার নকলা উপজেলার চরঅষ্টধর ইউনিয়নের ব্রহ্মপুত্র নদের চরাঞ্চল টাঙ্গাগাইয়ার পাড়ার লোকজন ও শিক্ষার্থীদের যাতায়াত সুবিধার্থে নকলা অদম্য মেধাবী সহায়তা সংস্থা ও ব্যক্তি উদ্যোগে নির্মাণ করে দেওয়া হয়েছে একটি কাঠের ব্রীজ। ওই ব্রীজটির নির্মাণ কাজ শেষ হয়েছে ১২ আগষ্ট রবিবার বিকালে। এতে করে ব্রহ্মপুত্র নদের ওপারের দুর্গম এলাকা টাঙ্গাগাইয়ার পাড়া গ্রামের লোকজনের দুর্ভোগ কমেছে।

উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান একেএম মাহবুবুল আলম সোহাগ’র এক মাসের বেতন ও  নকলা অদম্য মেধাবী সহায়তা সংস্থার অর্থায়নে কাঠের ওই ব্রীজ নির্মাণ করে দেওয়া হয়।

ফেসবুক পোস্টের মাধ্যমে সাঁকোটি উপজেলা চেয়ারম্যান ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন নকলা অদম্য মেধাবী সহায়তা সংস্থা’র কর্তৃপক্ষের নজরে আসে। পরে উপজেলা চেয়ারম্যান ও নকলা অদম্য মেধাবী সহায়তা সংস্থার কর্তৃপক্ষ সেখানে স্বল্প ব্যয়ে কাঠের একটি ব্রীজ করে দেওয়ার পরিকল্পনা করে। পরিকল্পনা অনুযায়ী লক্ষাধিক টাকা ব্যয়ে জনস্বার্থে নির্মাণ করে দেওয়া হয় অতি উপকারী কাঠের ওই ব্রীজ।

এবিষয়ে উপকারভোগীদের অনেকেই জানান, নকলা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও নকলা অদম্য মেধাবী সহায়তা সংস্থা’র সৌজন্যে এখন থেকে উপজেলার টাঙ্গাগাইয়ার পাড়া গ্রামের সাধারন লোকজন সহ এই ব্রীজের উপকার ভোগ করবেন শত শত শিশু শিক্ষার্থী। এখন থেকে আর নিজ উপজেলা রেখে অন্য উপজেলা বা জেলাতে গিয়ে পড়া লেখা করতে হবেনা। যাতায়াত অসুবিধার জন্য আর কোন সন্তান সম্ভবা মা ও কোন রোগীকে জীবন দিতে হবেনা। হয়ত শিক্ষায় পিছিয়ে থাকবেনা ওই এলাকার নারী সমাজ; এমনটাই মনে করছেন স্থানীয় হাজারও জনগন।

নকলা অদম্য মেধাবী সহায়তা সংস্থা’র সভাপতি শফিকুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক নাসির উদ্দিন তাদের অভিব্যক্তি প্রকাশ করতে গিয়ে বলেন, আমরা সব সময় অসহায় দরিদ্রদের  নিয়ে কাজ করলেও ফেসবুক পোস্টের মাধ্যমে টাঙ্গাগাইয়ার পাড়ার সাঁকো দিয়ে লোকজন ও শিক্ষার্থীদের দুর্ভোগের কথা জানতে পারি। একটি মাত্র ব্রীজের অভাবে শত শত লোক ও শিক্ষার্থীদের যাতায়াত অসুবিধার কথা চিন্তা করে ওই স্থানে স্বল্প ব্যয়ে কাঠের একটি ব্রীজ করে দেওয়ার কাজ হাতে নেই। আমাদের সামান্য আর্থিক সহায়তায় যদি আসহায়, দরিদ্র ও সাধারন মানুষ বিশেষ করে শিশু শিক্ষার্থীরা উপকৃত হয় তাতেই আমরা তৃপ্ত হই। সোহাগ’র এমন উপজেলা চেয়ারম্যান ও নকলা অদম্য মেধাবী সহায়তা সংস্থা’র মতো যদি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন প্রতিটি এলাকায় থাকতো তাহলে দেশের কোন এলাকাতে দুর্ভোগ থাকতোনা বলে মনে করেন সুশীল সমাজের নেতৃবৃন্দ।

ট্যাগ: banglanewspaper নকলা