banglanewspaper

ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের নরসিংদীর শিবপুর উপজেলায় যাত্রীবাহী বাস ও একটি বর যাত্রীবাহী মাইক্রোবাসের সংঘর্ষে নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে সাত জনে। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বরের অবস্থাও আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

মঙ্গলবার (১৪ আগস্ট) সকাল ৭ টার দিকে সোনাইমুড়ী এলাকায় বরযাত্রীবাহী মাইক্রোবাসটির সঙ্গে একটি যাত্রীবাহী বাসের সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই মারা যায় দুটি শিশু।

পরে স্থানীয় হাসপাতালে মারা যান দুজন। গুরুতর আহতদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে সেখানে মারা যান আরো তিনজন। সব মিলিয়ে চার শিশুসহ নিহতের সংখ্যা দাঁড়াল সাতজনে।

প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে শিবপুর মডেল থানার ওসি আবুল কালাম আজাদ জানান, বিয়ের অনুষ্ঠানে অংশ নিতে চাঁদপুরের মতলবের ষাটনল থেকে নরসিংদীর রায়পুরা নবুয়ারচর গ্রামে এসেছিলেন মাইক্রোবাসের যাত্রীরা। বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা শেষে আজ সকালে মতলবে ফিরছিলেন তারা। বর ও কনেবাহী মাইক্রোবাসটি সোনাইমুড়ী এলাকায় পৌছলে ঢাকা থেকে সিলেটগামী মিতালী পরিবহনের একটি বাসের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এসময় ঘটনাস্থলেই দুই শিশু মারা যায়। আহতদের উদ্ধার করে নরসিংদী জেলা হাসপাতালে নিয়ে গেলে আরো এক শিশুসহ দুইজন মারা যায়।

পরে ঢামেকে মারা যান আরো তিনজন।

নিহতরা হলো-স্নিগ্ধা বর্মণ(৪), সজল বর্মণ (২২), প্রান্তিক বর্মণ(৪), বৃষ্টি বর্মণ(৪), সৌরভ বর্মণ (১২), শুভ (৩০) এবং বিয়ের ভিডিও করতে বরযাত্রীর সঙ্গে থাকা ক্যামেরাম্যান। তবে তার নামটি এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

ট্যাগ: banglanewspaper নিহত