banglanewspaper

রাজশাহীতে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে একটি বাস দোকানের মধ্যে ঢুকে পড়ে তিনজন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন অন্তত চারজন। বুধবার বেলা ১১টার দিকে নগরীর নওদাপাড়া এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- নগরীর শাহমখদুম থানার মোড় এলাকার ইসলামের ছেলে ইসমাইল হোসেন ওরফে পিংকু (২৪), মোহাম্মদ আলীর ছেলে সবুজ ইসলাম (৩২) এবং নওদাপাড়ার ভাড়ালিপাড়া এলাকার রুস্তম আলীর মেয়ে আনিকা খাতুন (১৩)।

নিহত ইসমাইল ও সবুজ ডিস লাইনের মিস্ত্রি হিসেবে কাজ করতেন। আর আনিকা খাতুন স্কুলছাত্রী। ইসমাইল ও সবুজ ঘটনাস্থলেই নিহত হয়েছেন। আনিকা খাতুনের মৃত্যু হয়েছে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে নেওয়ার পর।

নগরীর শাহমখদুম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জিল্লুর রহমান বলেন, ‘অ্যারোবেঙ্গল’ নামের ওই যাত্রীবাহী বাসটি রাজশাহী থেকে নওগাঁ যাচ্ছিল। পথে নওদাপাড়া এলাকায় বাসটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে একটি মোটরসাইকেলকে চাপা দিয়ে রাস্তার পাশের দোকানে ঢুকে যায়। এতে দুই জন ঘটনাস্থলেই নিহত হন। আহত হন পাঁচজন। এদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়ার পর সেখানে স্কুলছাত্রী আনিকা মারা যায়।

ওসি আরও জানান, দুর্ঘটনার পর বিক্ষোভ শুরু করেন স্থানীয়রা। পরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করে। তবে দুর্ঘটনার পরই বাসের চালক ও হেলপার পালিয়ে গেছে। তাদের আটকের চেষ্টা চলছে। তবে ঘাতক বাসটি পুলিশের হেফাজতে নেওয়া হয়েছে। এ নিয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা।

ট্যাগ: বাস দোকানে নিহত