banglanewspaper

শরীফ আনোয়ারুল হাসান রবীন: ১৯ আগস্ট রবিবার ভাষাসৈনিক হামিদুজ্জামান এহিয়ার ১২ তম মৃত্যু বার্ষিকী। এ উপলক্ষে তাঁর পরিবারের পক্ষ থেকে মিলাদ মাহফিল ও কাঙালি ভোজের আয়োজন করা হয়েছে।

ভাষা আন্দোলনে ছাত্র নেতৃত্ব দেয়ায় হামিদুজ্জামান এহিয়াকে বেলুচ আর্মড ফোর্স গ্রেফতার করে। মাত্র ১৬ বছর বয়সে ভাষা আন্দোলনের কারণে কারাবরণ করে তিনিই বস্তুত হয়েছিলেন ইতিহাসে কনিষ্ঠতম ভাষা সৈনিক। তিনি ভাষা আন্দেলনে গৌরবদীপ্ত ভুমিকার কারণে জননেতা হোসেন শহীদ সোরাওয়ার্দী ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবের সান্নিধ্য ও আশীর্বাদ লাভ করেন।

তাঁর স্বীকৃতি স্বরূপ ভাষা আন্দোলন গবেষণ কেন্দ্র ও মিউজিয়াম হামিদুজ্জামান এহিয়াকে মরণোত্তর সম্মাননা প্রদান করেছে। বাংলাদেশ ভাষা আন্দোলন জাদুঘরে তাঁর ছবি সুসংরক্ষিত। সি, এম, তারেক রেজার “একুশ, ভাষা আন্দোলনের সচিত্র ইতিহাস” গ্রন্থে একটি পাতার লাবন্য বর্ধন করেছে তাঁর নাম আর আলোকচিত্র l মাগুরা জেলায় নাকোল সম্মিলনী ডিগ্রী কলেজে প্রতিষ্ঠাতা হিসেবে আজ তাঁর নাম বহন করছে।

এ ছাড়াও তাঁর নামে মাগুরার শ্রীপুর উপজেলার প্রায় পাঁচ কিলোমিটার দীর্ঘ একটি সড়কের নামকরণ করা হয়েছে, এই “ভাষা সৈনিক এ, কে, এম, হামিদুজ্জামান (এহিয়া) সড়ক” সরাসরি কেষ্টপুর বিশ্বরোড হতে নাকোল বাজারে গিয়ে মিশেছে। 

ট্যাগ: banglanewspaper মাগুরা