banglanewspaper

তমা রশিদ: লেখালেখিটা শুরু করি বেশ কিছুদিন হলো। আমি তখন নবম শ্রেণিতে। আত্মজীবনী মনোভাব নিয়ে প্রথম হাতে কলম নিয়েছিলাম। অবশ্য তখন এ নিয়ে তেমন কোনো চিন্তাই ছিল না।

টুকটাক লেখার মাধ্যমে কখন যে এমন চিন্তা আসলো বলতেও পারব না। কলেজে পড়াকালীন সময়ে টুকটাক লিখলেও তা কোথাও প্রকাশ বা কাউকে জানানো হয়নি। তবে আমার তিন বান্ধবীকে সবসময় পাশে পেয়েছি। আমার লেখাগুলো তারা পড়তো আর মজার মজার মন্তব্য করত। বেশ ভালোই লাগত লিখতে। ওদের অনুপ্রেরণা আর উৎসাহ সবসময় পেলেও লেখালেখিতে বেশিদূর আর আগানো হয়নি।

বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী হিসেবে সময় পাওয়াটাই দুস্কর! তবুও এর মধ্যেই টুকটাক লিখছি। একটি প্রতিযোগিতা এ উৎসাহ আরো বাড়িয়ে দিয়েছে। কিছুদিন আগে বাংলাদেশ অধ্যয়ন কেন্দ্র (সিবিএস ) এর একটি রচনা প্রতিযোগিতায় চতুর্থ স্থান অর্জন করেছিলাম।

প্রথমত: আমি তো অবাক হয়েছিই সাথে আমার মা-বাবাও। যেকোন কাজেই পরিবারের সমর্থন পেলে কাজটা সত্যিই ভালো হয়। আপাতত আরো কিছু লেখালেখি করতে চাচ্ছি। গল্প, কবিতা, নাটক কিংবা গান প্রতিটা বিষয়েই আমার আগ্রহ চরম। তবে নাটক এর স্ক্রিপ্ট লিখতে বেশি স্বাচ্ছন্দ আমার । 

এসব নাটক বা উপন্যাস নিয়ে কাজ করার সময় শুধু প্রেম-ভালোবাসা নয় বরং সুখ, দুঃখ, হাসি-কান্না, বিরহ, মৃত্যুসব কিছুই ফুটিয়ে তুলতে চেষ্টা করি সবসময়। আমার প্রতিটা লেখাতে পাঠকের মতামত দরকার। কেননা তাদের রুচি অনুযায়ী তাদের মনের মতো আবার কিছু লেখার স্বপ্ন দেখি। একজন নতুন লেখক হিসেবে সবার দোয়া আর সহযোগিতা কামনা করি।

(এ বিভাগে প্রকাশিত মতামত লেখকের নিজস্ব। বাংলাদেশ নিউজ আওয়ার-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে প্রকাশিত মতামত সামঞ্জস্যপূর্ণ নাও হতে পারে।)

ট্যাগ: Banglanewspaper আত্মজীবনী