banglanewspaper

আর মাত্র দুদিন বাদেই এশিয়া কাপের উদ্বোধনী ম্যাচে শ্রীলঙ্কার মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। দল দুটিকে ছাপিয়ে এরই মধ্যে আলোচনায় এসেছে লঙ্কান কোচ হাথুরুসিংহের নাম। টাইগারদের সাবেক এই কোচকে বাড়তি প্রতিপক্ষ ভাবছেন বাংলাদেশের অনেক ক্রিকেটভক্তই। লঙ্কান ব্যাটসম্যান ধনাঞ্জয়া ডি সিলভা তো খোলাখুলিভাবেই বলে দিয়েছেন- ‘এটি (হাথুরু বাংলাদেশের সাবেক কোচ) আমাদের জন্য শক্তিশালী জায়গা। হাথুরু বাংলাদেশের ব্যাটিং-বোলিংয়ের শক্তি ও দুর্বলতার জায়গাগুলো জানে। এখান থেকে ইতিবাচক বিষয়গুলো তুলে নেয়ার ভালো সুযোগ রয়েছে আমাদের।’

তবে সম্প্রতি শ্রীলঙ্কার মাটিতে অনুষ্ঠিত নিদাহাস ট্রফির কথা স্মরণ করলে ধনাঞ্জয়ার কথা মিথ্যা প্রমাণ হয়। নিজেদের কন্ডিশনে ও হাথুরুর মতো কোচ থাকার পরও কিন্তু শ্রীলঙ্কাকে হারিয়েই ওই আসরে ফাইনালে উঠেছিল বাংলাদেশ। তার আগে শ্রীলঙ্কার দায়িত্ব নেয়ার পরই হাথুরুর প্রথম অ্যাসাইনমেন্ট ছিল বাংলাদেশে। সেই তিন জাতি সিরিজেও লঙ্কানদের দারুণ ভুগিয়েছে স্বাগতিকরা। ভাগ্যটা সহায় থাকলে ট্রফিটাও বাংলাদেশের হাতেই উঠার কথা ছিল। 

ফলে কোচ যেই থাকুন না কেন- নিজেদের ভালো খেলাটার দিকেই বেশি মনোযোগী বাংলাদেশের ড্যাসিং অপেনার তামিম ইকবাল। একইসঙ্গে তামিম মনে করেন, কোনও প্রতিশোধ কিংবা ক্ষোভের জায়গা থেকে নয়, নিজেদের সেরাটা দিয়েই হাথুরু শিবিরকে হারাতে চায় বাংলাদেশ। 

২০১৭ সালে দক্ষিণ আফ্রিকা সফর চলকালে হঠাৎ পদত্যাগের ঘোষণা দিয়ে বিতর্কের জন্ম দিয়েছেন হাথুরু। জাতীয় দলের সিনিয়র খেলোয়াড়দের সঙ্গেও হাথুরুসিংহের বনিবনা হচ্ছিল না। তার একগুয়েমি সিদ্ধান্তই এর বড় কারণ। তাই হাথুরুর মুখোমুখি হওয়াটা যেন বাংলাদেশের জন্য অঘোষিত এক ‘প্রতিশোধে’র উপলক্ষ।

কিন্তু তামিম বিষয়টিকে সেভাবে দেখছেন না। তামিমের কথায়- হাথুরু দীর্ঘদিন বাংলাদেশের কোচ ছিলেন। তার সঙ্গে বিসিবি ও খেলোয়াড়দের দারুণ কিছু সময় কেটেছে। দারুণ কিছু সাফল্য তার হাত ধরে এসেছে। সে ক্রিকেটারদের সঙ্গে অসাধারণ কাজ করেছে। তার কৃতিত্বের জায়গাটা চাইলেও অন্য কেউ ছিনিয়ে নিতে পারবে না। 

দুবাইয়ে সংবাদ সম্মেলনে হাথুরুসিংহে সম্পর্কে এভাবেই অকপটে বলে যাচ্ছিলেন তামিম। সাবেক গুরুকে নিয়ে তামিম বলেন, ‘আমরা হাথুরুর সঙ্গে অসাধারণ কিছু মুহূর্ত কাটিয়েছি। চার-পাঁচ বছর কেউ কোচ হিসেবে থাকলে সম্পর্কের উত্থান-পতন থাকবেই।’

আর আলদা করে হাথরুসিংহেকে হারানোর কোনও চিন্তাও নেই তামিমের মাথায়। তিনি বলেন, ‘হ্যাঁ, অবশ্যই আমরা আমাদের সাবেক কোচকে হারাতে চাই। তবে খুব ভালো মানসিকতা নিয়ে—প্রতিশোধ নেয়ার জন্য নয়।’

সঙ্গে তামিম এ কথাটাও সতীর্থদের স্মরণ করিয়ে দিয়েছেন যে, ‘শ্রীলঙ্কা একদিকে যেমন প্রতিভায় ঠাসা দল তেমনই তাদের আছে হাথুরুর মতো একজন দুর্দান্ত কোচ। অতএব দিন শেষে ভালো খেলার সেরাটা উজার করে দেয়ার কোনও বিকল্প নেই।’
 

ট্যাগ: banglanewspaper বাংলাদেশ