banglanewspaper

অ্যাপেল বুধবার আইফোনের নতুন তিনটি সংস্করণ প্রকাশ করেছে। এগুলো হলো আইফোন এক্সএস, এক্সএস ম্যাক্স এবং এক্সআর। 

নতুন আইফোন তিনটির মূল্য শুরু হচ্ছে যথাক্রমে ৭৪৯ ডলার, ৯৯৯ ডলার এবং ১০৯৯ ডলার থেকে। সবগুলো ফোনেই ব্যবহৃত হয়েছে এ১২ চিপসেট। 

অ্যাপেলের দাবি, নতুন চিপসেটের কারণে অ্যাপ ওপেন হওয়ার গতি বৃদ্ধি পাবে প্রায় ৩০ শতাংশ। নতুন আইফোনগুলোর বুকিং নেওয়া শুরু হবে আগামী শুক্রবার থেকে। আর সেগুলো ক্রেতাদের কাছে পাঠানো শুরু হবে আগামী ২১ তারিখ থেকে। তবে এক্সআরের বুকিং শুরু হবে আগামী ১৯ তারিখ থেকে। সেগুলো ২৬ অক্টোবরের আগে পাওয়া যাবে না। 

যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম গার্ডিয়ান মন্তব্য করেছে, সবার আগে আইফোন কেনার যে ঝোঁক আইফোন ভক্তদের রয়েছে সেই ঝোঁককে কাজে লাগাতেই হয়তো অপেক্ষাকৃত সস্তা এক্সআরের প্রাপ্যতার সময় পিছিয়ে দিয়েছে অ্যাপেল।
 
দামি সংস্করণ দুইটি হচ্ছে এক্সএস ও এক্সএস ম্যাক্স। এদের পার্থ্যক্য এদের ডিসপ্লের দৈর্ঘে। এক্সএসে রয়েছে ৫.৮ ইঞ্চির ডিসপ্লে। আর এক্সএস ম্যাক্সে ৬.৫ ইঞ্চির ডিসপ্লে। অ্যাপেলের এ দুইটি ফোনে ব্যবহৃত হয়েছে ‘সুপার রেটিনা’ ওলেড এইচডিআর ডিসপ্লে।

এক্সএস ও এক্সএস ম্যাক্সের ফোনগুলোতে ৬৪, ২৫৬, ৫১২ জিবি মেমোরি পাওয়া যাবে তথ্য ধারণের জন্য। র‍্যাম থাকছে চার জিবি করে। দুই ফোনেই সামনের দিকের ক্যামেরা সাত মেগাপিক্সেলের। পেছনে রয়েছে একটি ওয়াইড অ্যাঙ্গেল ও একটি টেলিফটো লেন্স। দুইটিই ১২ মেগাপিক্সেলের।

আইফোন এক্সআরের ডিসপ্লের দৈর্ঘ ৬.১ ইঞ্চি। এতে এলসিডি ডিসপ্লে ব্যবহার করা হলেও অ্যাপেল এই ডিসপ্লেকে ‘লিকুইড রেটিনা’ আখ্যা দিয়ে বলেছে, ফোনে ব্যবহৃত এলসিডি ডিসপ্লেগুলোর মধ্যে এটিই এখন পর্যন্ত সবচেয়ে উন্নত প্রযুক্তির এলসিডি। এটি পাওয়া যাবে ৬৪, ১২৮ ও ২৫৬ জিবির মেমোরিসহ। এতে রাম থাকছে ৩ জিবি। 

এক্সআরের পেছন দিকে ১২ মেগাপিক্সেলের ওয়াইড অ্যাঙ্গেলের লেন্সে নেই টেলিফটো লেন্স। তবে অপেক্ষাকৃত দামি অপর দুইটি ফোনের মতো এর সামনের দিকেও রয়েছে ৭ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা।

সবগুলো ফোনেই থাকছে দুইটি সিম ব্যবহার করার সুবিধা। তবে ফোনে একটি সিম সরাসরি যুক্ত করা যাবে। ডুয়েল সিমের সুবিধা পেতে লাগবে ই–সিম ফিচার সমর্থন করে এমন মোবাইল সেবা প্রদানকারীর সংযোগ।

উল্লেখ্য, নতুন আইফোনের পাশাপাশি অ্যাপেল উন্মোচন করেছে নতুন অ্যাপেল ওয়াচও। 

ট্যাগ: bdnewshour24 আইফোন