banglanewspaper

এম.পলাশ শরীফ, মোড়েলগঞ্জ: বাগেরহাটের মোড়েলগঞ্জে পুত্রবধূকে গরম ছ্যাকা দিয়েছেন শ্বাশুড়ি ও দেবর। আহত পুত্রবধূ রেশমা বেগমকে (২২) মঙ্গলবার বিকেল ৩টায় মোড়েলগঞ্জ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এ ঘটনায় বুধবার বিভিন্ন পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশ হলে প্রশাসনের নজরে আসে। পরবর্তীতে থানা পুলিশ নির্যাতিত গৃহবধু রেশমার খোজ খবর নেন।

বৃহস্পতিবার মোড়েলগঞ্জ থানায় গৃহবধু রেশমার মা বাদি হয়ে মামলা দায়ের করে। মামলা নং-২৮, তারিখ-২০.৯.২০১৮। থানা পুুলিশ এ ঘটনায় জড়িত দেবর রুবেল মুন্সি(২২)কে গ্রেফতার করেছে। 

মামলা সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার খাউলিয়া ইউনিয়নের পশুরবুনিয় গ্রামের আলম মুন্সীর পুত্র আরিফ মুন্সীর সাথে ৫ বছর পূর্বে বিবাহের পর থেকেই রেশমাকে তার শ্বাশুড়ি ও দেবর কোন ভাবেই মেনে নিতে পারেনা বিভিন্ন সময়ে তাকে শারিরীক ও মানষিকভাবে নির্যাতন করে আসছে। সর্বশেষ সোমবার সকালে তার শ্বাশুড়ি খাজিদা বেগম ও দেবর রুবেল মুন্সী মারপিট করে গৃহবধুুকে এক পর্যায়ে পিতলের খুন্তি গরম করে রেশমার হাতে চেপে ধরেন শ্বাশুড়ি। এসময় তার স্বামী বাড়িতে ছিলেন না।

হাসপাতালে চিকিৎসারত রেশমা বেগম বলেন, বিয়ের সময় ১ লাখ টাকা ও ৫০জন লোককে খাওয়াতে না পারায় তার শ্বাশুড়ি প্রায়ই তাকে শারিরিক ও মানসিক নির্যাতন করেন। সোমবার বিকেলে একই কারনে শ্বাশুড়ি খাদিজা বেগম ও দেবর রুবেল মুন্সি তাকে মারপিট করে।

এ সম্পর্কে থানার ওসি কেএম আজিজুল ইসলাম বলেন, ‘গৃহবধু রেশমার নির্যাতনের ঘটনা শুনে তাৎক্ষনিক খোঁজ কবর নিয়েছি। ইতোমধ্যে মামলার একজন আসামিকে গ্রেফতার করেছি।’

ট্যাগ: Banglanewspaper মোড়েলগঞ্জ গৃহবধু