banglanewspaper

রাঙামাটির নানিয়ারচর উপজেলার সাবেক্ষং ইউনিয়নের রাম সুপারীপাড়া গ্রামে সন্ত্রাসীদের গুলিতে ইউপিডিএফের দুই কর্মী নিহত হয়েছেন।

বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত একটার দিকে এই ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন, শ্যামল কান্তি চাকমা ওরফে সুমন্ত (৩৫) এবং যুদ্ধ মোহন চাকমা ওরফে আকর্ষণ (৪২)। নিহত মোহন চাকমা রাম সুপারীপাড়ার মৃত জয় কুমার চাকমার ছেলে এবং শ্যামল কান্তি নানিয়ারচর সদর ইউনিয়নের সোনারাম কার্বারী পাড়ার আদুরি পেদা চাকমার ছেলে।

স্থানীয় সূত্র জানা গেছে, নিহতরা বৃহস্পতিবার রাতযাপন করতে রাম সুপারীপাড়া গ্রামে সুমতি চাকমার বাড়িতে যায়। খবর পেয়ে প্রতিপক্ষের সন্ত্রাসীরা সেখানে গিয়ে সুমতির ঘর ঘেরাও করে তাদের ধরে গুলি করে মৃত্যু নিশ্চিত করার পর পালিয়ে যায়।

নানিয়ারচর থানা পুলিশ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছে। নিহত দুজনকে নিজেদের কর্মী বলে দাবি করছে ইউপিডিএফ। এ ঘটনার জন্য সংগঠনটি সংস্কারবাদী জেএসএস এম এন লারমা দলকে দায়ী করেছে।

ইউপিডিএফ রাঙামাটি সমন্বয়ক সচল চাকমা বলেন, সংস্কারবাদী জেএসএস (জেএসএস এম এন লারমা) এ হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে।

তবে জেএসএস এমএন লারমা দলের সহ তথ্য প্রচার সম্পাদক প্রশান্ত চাকমা বলেন, ইউপিডিএফের দুই পক্ষের মধ্যে যেকোনো হত্যাকাণ্ড এখন জেএসএস এম এন লারমা দলের উপর চাপিয়ে দিচ্ছে ইউপিডিএফ। জেএসএস এম এন লারমা এসব কর্মকাণ্ডে জড়িত নয়।

নিহত দুজন এক সময় ইউপিডিএফ (গণতান্ত্রিক) দলের কর্মী ছিলেন। গত বছর তারা দল ছেড়ে ইউপিডিএফে যোগ দেন জানিয়েছে ইউপিডিএফ জেলা সমন্বয়ক সচল চাকমা।

মরদেহ উদ্ধারের জন্য পুলিশ ঘটনাস্থলে রওনা হয়েছে জানিয়েছে নানিয়ারচর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল লতিফ।

ট্যাগ: Banglanewspaper নানিয়ারচর ইউপিডিএফ কর্মী