banglanewspaper

এম.পলাশ শরীফ, বাগেরহাট প্রতিনিধি : বঙ্গোপসাগরে ঝড়ের কবলে পড়ে বিপদ গ্রস্তহয়ে ভারতের জলসীমায় গিয়ে উদ্ধার হওয়া বাংলাদেশী ১৫ জেলেকে অবৈধ অনুপ্রবেশের অভিযোগ আটকের পর তাদের কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

রবিবার দুপুরে আদালতের নির্দেশে তাদের দক্ষিণ চব্বিশ পরগনার আলীপুর কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়।

শুক্রবার সন্ধ্যায় ভারতীয় জলসীমায় ভাসতে থাকা বাংলাদেশী ১৫ জেলেকে সেদেশের জেলারা উদ্ধারের পর পশ্চিমবঙ্গের দক্ষিণ চব্বিশ পরগোনার কাকদ্বীপের পার্থপ্রতিম থানায় হস্তান্তর করে।

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের দক্ষিণ চব্বিশ পরগোনার পার্থপ্রতিম থানার এসআই মিলন দাস জানান, বাংলাদেশী ১৫ জেলেকে ভারতীয় জলসীমায় অবৈধ অনুপ্রবেশের দায়ে তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের পর আদালতে পাঠানো হয়। আদালতের নির্দেশে বাংলাদেশী এসব জেলেদের রবিবার দুপুরে দক্ষিণ চব্বিশ পরগোনার আলীপুর কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়েছে। 

আটক ১৫ বাংলাদেশী জেলেদের মধ্যে ৫ জনের নাম জানাতে পেরেছেন ওই ভারতীয় পুলিশ কর্মকর্তা। তারা হলেন, পটুয়াখালী জেলার মহিপুরের সুলতান, ছগির, শাজাহান, আবু সুফিয়ান ও আনছার। তবে ভারতের কাকদ্বীপ এলাকার জেলের কাছে আরো ৯ বাংলাদেশী জেলে রয়েছেন বলে জানিয়েছেন বরগুনা জেলা মৎস্যজীবি ট্রলার মালিক সমিতির সভাপতি গোলাম মোস্তফা। তিনি বলেন, ভারত থেকে ওই ৯ জেলেকে দেশে ফিরিয়ে আনার চেষ্টা চলছে।

মোংলা কোষ্টগার্ড পশ্চিম জোন সদর দপ্তরের অপারেশন কর্মকর্তা লে. জাহিদ আল হাসান ও মোংলার দিগরাজ নৌ ঘাঁটির মিডিয়া উইং কর্মকর্তা ফরিদ আহম্মেদ বলেন, বঙ্গোপসাগরে এখনো নিখোঁজ থাকা জেলেদের উদ্ধারে কোস্টগার্ডের সুপতি, কচিখালী, কটকা, দুবলা ও শরণখোলার পাঁচটি ষ্টেশন এবং বিএনএস মোংলা নৌ ঘাটির যুদ্ধ জাহাজ বিএনএস কপোতাক্ষ উদ্ধার অভিযান চালিয়ে যাচ্ছে।

ট্যাগ: bdnewshour24 কাকদ্বীপ