banglanewspaper

বাগেরহাট প্রতিনিধি: বাগেরহাটের মোড়েলগঞ্জে বিশারীঘাটা গ্রামে ব্যবসায়ী হারুন মুন্সী(৫০)সহ ৪ জনের বিরুদ্ধে অনৈতিক কাজে লিপ্ত থাকার অভিযোগে মোড়েলগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের হয়েছে। 

মামলা সূত্রে জানাগেছে, উপজেলার সদর ইউনিয়নের বিশারীঘাটা গ্রামের আব্দুল কাদের হাওলাদারের বাড়ি থেকে গত মঙ্গলবার রাতে থানা পুলিশ ভ্রাম্যমান এক কলগাল(৩০) কে আটক করে। এ সময় তার খদ্দের একই গ্রামের করাত কল ব্যবসায়ী হারুন মুন্সী(৪৫), গ্রাম পুলিশ সুলতান খা(৪৫)সহ সঙ্গীয়রা পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে পালিয়ে যায় বলে পুলিশ জানায়।

আটককৃত ওই ভ্রাম্যমান কলগাল বলেন, আমাকে রাত যাপনের জন্য ১৫শ’ টাকার চুক্তিতে বাগেরহাট থেকে মোবাইল ফোনে ডেকে আনেন হারুন মুন্সী। দিনের আলোতে স্থানীয় লোকজন আমাকে দেখে ফেলে তারা হৈ-চৈ করে। এক পর্যায় পুলিশকে সংবাদ দেয়। অভাবের তাড়নায় তিনি এ নোংরা ব্যবসায় নেমেছেন বলেও জানান। 

এ ঘটনায় মোড়েলগঞ্জ থানায় পুলিশ বাদি হয়ে ৪ জনের বিরুদ্ধে নন এফ,আই, আর, প্রসিকিউশন নং-৩১/১৮, তারিখ-১৯/০৯/২০১৮। অভিযোগপত্র দাখিল করেছেন বাগেরহাট কোর্টে। ঘটনার পর থেকেই হারুন মুন্সী, গ্রাম পুলিশ সুলতান খা ও আব্দুর কাদের হাওলাদার পলাতক রয়েছে।  

স্থানীয়রা অভিযোগ করেন হারুন মুন্সী দীর্ঘদিন ধরে মোড়েলগঞ্জ সদর ইউনিয়নে বহিরাগত পতিতাদের ডেকে এনে এ ধরনের অনৈতিক ব্যবসা করছেন। 

মামলায় বলা হয়েছে আসামীরা এলাকায় একে অপরের যোগসাজসে অনৈতিক কার্যকলাপে লিপ্ত হয়ে গন উপদ্রপ ও বিরক্তিকর সৃষ্টি করিয়াছে। 

এ ব্যাপারে সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মাহমুদ আলী বলেন, ঘটনাটি যারা ঘটিয়েছে তারা অপরাধী, তাদের আইনের আওতায় এনে বিচার হওয়া দরকার। পরবর্তীতে এ ধরনের ঘটনা যেনো আর না ঘটে। 

ট্যাগ: bdnewshour24 মোড়েলগঞ্জ