banglanewspaper

বিচার কাজ ব্যাহত করতে আদালতের বাইরে ষড়যন্ত্র চলছে বলে আদালতে অভিযোগ করেছেন জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় দুদকের আইনজীবী মোশাররফ হোসেন কাজল। আর বেগম জিয়ার আইনজীবীরা বলছেন, ষড়যন্ত্র নয় বরং আইনিভাবে মামলাটি মোকাবেলা করছেন তারা।

এদিকে, জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার বিচারপতির প্রতি অনাস্থা জানিয়েছেন আসামিপক্ষের আইনজীবীরা। আগামীকাল মঙ্গলবার (২৫ সেপ্টেম্বর) এ বিষয়ে আদেশ দেবেন আদালত।

জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় আসামিপক্ষের যুক্তিতর্ক উপস্থাপনের দিন ধার্য ছিল আজ সোমবার (২৪ সেপ্টেম্বর)। এ দিন সুস্থ না হওয়া পর্যন্ত মামলার কার্যক্রম মূলতবির আবেদন করেন বেগম জিয়ার আইনজীবীরা।

জামিনে থাকা অপর দুই আসামি জিয়াউল ইসলাম মুন্না ও মনিরুল ইসলাম খান বিচারকের প্রতি অনাস্থা জানিয়ে আলাদা আবেদন করেন। এ বিষয়ে মঙ্গলবার আদেশের দিন ধার্য করা হয়েছে। একইসঙ্গে জিয়াউল ইসলাম মুন্নার জামিন বাতিল করেছেন আদালত।

দুদকের আইনজীবী বলছেন, বিচারকাজ ব্যাহত করতে আদালতের বাইরে ষড়যন্ত্র চলছে। আদালতে তারই প্রতিফলন ঘটাচ্ছেন তার আইনজীবীরা।

দুদকের আইনজীবী মোশাররফ হোসেন কাজল বলেন, ‘তার (খালেদা জিয়া) আইনজীবীরা ভেতরে ও বাইরে দুই জায়গায় আদালতে বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র চলছে। এবং ষড়যন্ত্রের ফলশ্রুতিতে নির্দেশিত হয়ে কতিপয় আমাদের দেশীয় গুরুজন, যারা আদালতে প্রতি অনাস্থা জ্ঞাপনের নির্দেশ দেন।’

বেগম জিয়ার আইনজীবীরা বলছেন, ষড়যন্ত্র নয় বরং আইনিভাবেই মামলা মোকাবেলা করছি। পাবলিক প্রসিকিউটর অবান্তর কথা বলেছেন। বাইরে কে কি কথা বললেন। সেই বিষয় নিয়ে আদালতে উপস্থাপন করার কোনো সুযোগ নেই। কাজল সাহেব যে রকম কথা বলেছেন, সেটা অন্যায় তার এরকম কথা বলা থেকে বিরত থাকা উচিত।

এদিন বেগম জিয়ার চিকিৎসার বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে কারা কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। কারা মহাপরিদর্শক জানান, বেগম জিয়া বিএসএমএমইউতে ভর্তির বিষয়ে সময় চেয়েছেন।

এদিকে, আইজি প্রিজনস বলেন, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সঙ্গে আলোচনার পরবর্তীতে মেডিকেল বোর্ড গঠন করা হয়। সেখানে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের পাঁচজন চিকিৎসক খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করে অভিমত দিয়ে গেছেন। এছাড়া পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য তারা আগেও সাজেশন করেছেন এখনও করেছেন। আর পরীক্ষার রিপোর্ট হাতে পেয়ে উনারা চূড়ান্ত মতামত জানাবেন। আর সেই ব্যাপারে আমি বেগম খালেদা জিয়াকে জানিয়েছি, তিনি আমার কাছে কিছুদিন সময় চেয়েছেন। এবং কয়েকদিন পর তিনি আমাদেরকে জানাবেন।

এদিকে বিশেষায়িত হাসপাতালে বেগম জিয়ার চিকিৎসার নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে রিট করেছেন তার আইনজীবীরা। মঙ্গলবার এ বিষয়ে শুনানির দিন ধার্য রয়েছে।

ট্যাগ: Banglanewspaper খালেদার বিচার ষড়যন্ত্র