banglanewspaper

ফরহাদ খান, নড়াইল: নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার আমাদা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ঝুঁকিপূর্ণ ভবনের পলেস্তরা ভেঙ্গে পড়ে অষ্টম শ্রেণির দুই ছাত্র আহত হয়েছে।

সোমবার (২৪ সেপ্টেম্বর) দুপুরে এ ঘটনা ঘটে। এতে অষ্টম শ্রেণির ছাত্র বিল্লাল ও সিফাত আহত হয়েছে। শিক্ষার্থীরা জানায়, হঠাৎ পলেস্তরা ভেঙ্গে তাদের ঘাড়ের ওপর পড়ে। এতে সবার মাঝে আতঙ্ক সৃষ্টি হয়। তবে অল্পের জন্য বড় ধরণের বিপদ থেকে রক্ষা পেয়েছে তারা। এ রকম ঘটনা প্রায়ই ঘটছে বলেও জানিয়ে শিক্ষার্থীরা।

বিদ্যালয়ের শিক্ষকেরা জানান, প্রায় পাঁচ বছর ধরে নড়াইলের আমাদা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের একতলা ভবনটি ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে। বৃষ্টি হলে তিনটি কক্ষের ছাদ দিয়ে পানি পড়ে। ছাদের পলেস্তরা প্রায়ই ভেঙ্গে পড়ে। এ কারণে পাঠদান ব্যাহত হচ্ছে। ভবনটি ১৯৯৫ সালের দিকে নির্মাণের পর এখন ব্যবহার অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। এই ভবনটিতে শিক্ষকদের অফিস রুম, মেয়েদের কমনরুম ও অষ্টম শ্রেণির পাঠদান দেয়া হয়।

এদিকে বিদ্যালয়টিতে আরো দু’টি টিন শেডের ঘর থাকলেও শ্রেণিকক্ষের অভাবে ঝুঁকিপূর্ণ এই ভবনটিতে শিক্ষা কার্যক্রম চালানো হচ্ছে। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নির্মল কুন্ডু বলেন, ঝুঁকিপূর্ণ ভবনটির ব্যাপারে ইতোমধ্যে জেলা প্রশাসক ও স্থানীয় সংসদ সদস্যসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে অবগত করা হয়েছে।

তবে নতুন ভবন বা সংস্কারের বিষয়ে কোনো সাড়া মেলেনি। এক্ষেত্রে আমরা নতুন একটি ভবন নির্মাণের দাবি করছি। এতে পাঠদানসহ শিক্ষা কার্যক্রম আরো গতিশীল হবে।

ট্যাগ: Banglanewspaper ভবনের পলেস্তরা আমাদা মাধ্যমিক বিদ্যালয়