banglanewspaper

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন, ‘২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায়ে প্রমাণিত হল দেশে যারাই অপকর্ম করবে তাদের শাস্তি পেতে হবে। এ মামলায় যারা সাজাপ্রাপ্ত পলাতক তাদের শিগগিরই দেশে এনে সাজা ভোগের ব্যবস্থা করা হবে।’ মামলার রায় যথার্থ হয়েছে বলেও মনে করছেন তিনি।

বুধবার (১০ অক্টোবর) দুপুরে সচিবালয়ে নিজ কার্যালয়ে মামলার রায় পরবর্তী প্রতিক্রিয়ায় সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে এসব কথা বলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘আজকে জাতির জন্য বড় একটা দিন। আমরা মনে করি জাতির কালিমা যেটা আমরা লেপন করেছি বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করে এ রকম আরেকটা কালিমা লেপন ২১ আগস্ট করেছিল। এ কালিমা আজকে দূর হলো। আমরা মনে করি বাংলাদেশের মানুষ স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলবে। এ দেশে বিচার প্রতিষ্ঠিত হয়েছে, এখানে ন্যায় বিচার হয়। যারাই নাকি এ ধরনের কর্ম করবে তাদের বিচার অবশ্যই হবে।’

এ রায়ে কি আপনি খুশি- এমন প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, ‘অবশ্যই আমি খুশি। আমি মনে করি বিজ্ঞ আইনজীবীরা সবকিছু সঠিকভাবে তুলে ধরেছিলেন এবং বিজ্ঞ বিচারকরা সঠিক বিচারটিই করতে সক্ষম হয়েছেন। তখন যারা সেই জায়গাটিতে পুলিশের ডিউটিতে ছিলেন এবং যারা বিভিন্ন সংস্থার সঙ্গে জড়িত ছিলেন রায়ের মধ্যে তারাও আসছেন। কেউই তাদের দায়িত্বে অবহেলা করতে পারবেন না। এ ধরনের নৃশংস প্রোগ্রাম যারা নিয়েছিলেন, যারা আশ্রয়-প্রশ্রয় দিয়েছিলেন, অর্থ যোগান দিয়েছেন তাদেরও ফাঁসি কিংবা যাবজ্জীবন দণ্ড হয়েছে। আমরা মনে করি এটা যথার্থই হয়েছে।’

জজ মিয়া নাটক তৈরির ব্যাপারে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘এটাকে আড়াল করা বা অন্য দিকে ঘুরিয়ে দেয়ার জন্য প্রচেষ্টা অনেক হয়েছে। আমাদের আওয়ামী লীগের লোকের বাড়িঘর তছনছ করা হয়েছিল, তাকে আসামি বানানোর প্রচেষ্টা হয়েছিল। এগুলো আপনারা দেখেছেন। এর কারণটা কী ছিল। যারা এ কর্মটা করেছিল তারা এটা যাতে আড়াল করা যায় সেই ব্যবস্থা নিয়েছিল। মামলাটি পর্যন্ত নেয়নি। এমনকি জাতীয় সংসদে আমাদের নেতারা যখন প্রটেস্ট করতে যাচ্ছিলেন, তাদের বলতে দেয়া হয়নি। এতে প্রমাণিত হয় যারা শাস্তির আওতায় এসেছেন তারা এর সঙ্গে জড়িত ছিলেন। রাজনৈতিকভাবে তাদের একটা উদ্দেশ্য ছিল। সেই উদ্দেশ্য বাস্তবায়নের জন্যই এ ঘটনাটি ঘটিয়েছে।’

ট্যাগ: bdnewshour24 স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী