banglanewspaper

রাজধানীর উত্তরখান ব্যাপারীপাড়ার একটি বাসায় গ্যাস লাইন লিকেজের আগুনে একই পরিবারের আট জন দগ্ধ হয়েছেন। এর মধ্যে ছয় জনের অবস্থা আশংকাজনক বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

শনিবার (১৩ অক্টোবর) ভোর ৪টার দিকে এই দুর্ঘটনা ঘটে। ফায়ারসার্ভিসের সহায়তায় তাদেরকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে।

দগ্ধরা হলেন, সুফিয়া বেগম (৫০), মেয়ে আফরোজা আক্তার পুর্নিমা (৩০), তার ছেলে সাগর (১২), সুফিয়া বেগমের ভাতিজা আজিজুল ইসলাম (২৭) স্ত্রী মুসলিমা আক্তার (২০), আজিজুলের বোন আনজু (২৫), তার স্বামী ডাবলু (৩৩), ছেলে আব্দুল্লাহ (৫)।

দগ্ধ আনজু জানান, তাদের বাড়ি পাবনার ভাঙ্গুরা উপজেলার গোবিন্দপুর গ্রামে। বর্তমানে উত্তরখান ব্যাপারীপাড়া হেলাল মার্কেট মেহেদী মাস্টারের তিন তলা বাসার নিচ তলায় ভাড়া থাকে।

তিনি জানান, রাতে খাবার খেয়ে ঘুমিয়ে পড়েন। ভোরে হঠাৎ ঘরের মধ্যে দেখেন আগুন। এরআগে দুই সপ্তাহ ধরে ঘরের মধ্যে গ্যাসের গন্ধ পাওয়া যাচ্ছিল। বাড়িওয়ালাকে বলা হয়েছে। কিন্তু তিনি কোন ব্যবস্থা নেননি বলেন আনজু।

উত্তরা ফায়ার সার্ভিসের সিনিয়র স্টেশন মাস্টার মো. শফিকুল ইসলাম জানান, শনিবার ভোর ৪টার দিকে আগুনের সংবাদ পেয়ে তিনটি ইউনিট ঘটনাস্থলে যায়। এরপর দগ্ধ আট জনকে উদ্ধার করে ঢামেক হাসপাতালে পাঠানো হয়। এর মধ্যে দুইজন শিশু চার জন নারী ও দুইজন পুরুষ রয়েছে।

তিনি জানান, ধারণা করা হচ্ছ, গ্যাসের লাইন লিকেজ থেকেই আগুনের ঘটনা ঘটেছে।

বার্ন ইউনিটের আবাসিক চিকিৎসক ডা. পার্থ শংকর পাল জানান, রাজধানীর উত্তরখানের আট জন রোগী হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি হয়েছে। এর মধ্যে দুই শিশু চার নারী ও দুই পুরুষ আছে।

তিনি জানান, দগ্ধদের মধ্যে আনজু ও আব্দুল্লাহর অবস্থা ভাল থাকলেও বাকি ছয়জনের অবস্থা আশংকাজনক।

ট্যাগ: bdnewshour24 উত্তরা গ্যাস অগ্নিকাণ্ড