banglanewspaper

এম.পলাশ শরীফ, বাগেরহাট: বাগেরহাটের মোড়েলগঞ্জে হিন্দু সম্প্রদায়ের সর্ববৃহৎ উৎসব শারদীয় দুর্গোৎসব সোমবার থেকে ৬ষ্ঠী বোধনের মধ্যে দিয়ে দূর্গা পূজা শুরু হয়েছে। ৭৬টি মন্ডপে সেজেছে বর্ণিল সাজে এ উৎসবকে ঘিরে সবত্র এখন সাজ সাজ রব।

বিপনী দোকানগুলোতে কেনাকাটায় ভীড়। ঢাক, কাসা, আর শঙ্খের গুরুভম্ভীর শব্দের মাধ্যমে সুখ শান্তি ও সম্প্রতি সৌর্হাদের বার্তা নিয়ে এসে হে বিশ্ব জননী দূর্গতি নাশিনী দেবী মা দূর্গাকে এভাবে শরৎতকালে আহ্বান জানানো হয়।

সরেজমিন ঘুরে জানা গেছে, এ বারে এ উপজেলায় ১৬টি ইউনিয়ন সহ ১টি পৌরসভায় ৭৬টি পূর্জা মন্ডপে শারর্দীয় দুর্গোৎসব অনুষ্ঠিত হচ্ছে। উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ইতো মধ্যে আইনশৃংখলা রক্ষার্থে পূর্জা মন্ডগুলোতে রাখা হয়েছে সর্বত্র সর্তকতা ব্যবস্থা।

প্রতিটি মন্ডপে আনসার বিডিপি পুলিশের মোবাইল টিম ও স্থানীয় স্বেচ্ছাসেবকটিম প্রতিটি মন্ডপে পৌছে গেছে বলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. কামরুজ্জামান জানান।

মোড়েলগঞ্জ পৌর সদরে সার্বজনীন শ্রী শ্রী হরিসভা মন্দির, সাদক রামপ্রসাদ কালি মন্দির, সেরেস্তাদারবাড়ি নবারুন সংঘ দূর্গা মন্দির, সোলমবাড়িয়া সার্বজনীন শ্রী শ্রী শারর্দীয় দূর্গা মন্দিরসহ তেলিগাতি ইউনিয়নে ৩টি, পঞ্চকরণ ৩টি, পুটিখালী ১টি, দৈবজ্ঞহাটী ২টি, রামচন্দ্রপুর ৫টি, চিংড়াখালী ৮টি, হোগলাপাশা ৭টি, বনগ্রাম ১৩টি, বলইবুনিয়া ৩টি, হোগলাবুনিয়া ১টি, বহুরবুনিয়া ৩টি, জিউধরা ৯টি, নিশানবাড়িয়ায় ৩টি, বারইখালী ৩টি, মোড়েলগঞ্জ সদর ২টি ও খাউলিয়া ইউনিয়নে ৬টি পূজা মন্ডপে উৎসব মূখর পরিবেশে শারদীয় দূগা পূজা অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

রোববার সন্ধ্যা ৭টায় শহরের বিভিন্ন বিপনন দোকানগুলোতে দেখা গেছে উপচে পড়া ভীর। বিশেষ করে গার্মেন্স, কাপড়ের দোকান ও পাদুকা দোকানগুলোতে ভীর বাড়ছে। এদিকে মন্ডপগুলোতে সরকারি ভাবে ৩২ মেট্রিকটন চাল প্রতিটি মন্ডপে ৫শ’ কেজী করে দিয়েছেন উপজেলা প্রশাসন।

স্থানীয় সংসদ সদস্য ডা. মোজাম্মেল হোসেন তার ব্যক্তিগত তহাবিল থেকে এ অনুদান প্রদান করেছেন ৭৬টি মন্ডপে। প্রতিটি মন্ডপে প্রতিমা নির্মাণের পাশাপাশি সার্বজনীন স্থায়ী মন্দিরগুলোতে ব্যাপক সাজ সজ্জায় আলোকিত করা হয়েছে। অস্থায়ী মন্ডপগুলোতে চলছে সু দৃশ্য আলোক সজ্জার কাজ।

এ ব্যাপারে কথা হয় সাদক রাম প্রসাধ দুর্গা মন্দিরের স্বপন কুমার সাহার সাথে তিনি বলেন, এ বারের দূর্গা পূজায় অন্য বছরের চেয়ে দর্শনার্থী ও পূজারিদের বেশী ঘটবে বলে আশা করা যাচ্ছে।

এ ব্যাপারে থানা অফিসার ইনর্চাজ কেএম আজিজুল ইসলাম জানান, প্রতিটি দূর্গা মন্ডপে ইতোমধ্যে আনসার বিডিপি, দুটি মন্ডপের জন্য একটি করে পুলিশের মোবাইল টিম, গোয়েন্দা নজরদারি রাখা হয়েছে। পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে সকল প্রকার সার্বক্ষনিক সহযোগিতাসহ সর্বোচ্চ সর্তকতা রাখা হয়েছে।

ট্যাগ: bdnewshour24 শারদীয় দুর্গোৎসব