banglanewspaper

সাংবাদিক জামাল খাসোগি হত্যাকাণ্ডে পদক্ষেপ নেয়ার ব্যাপারে ফের যুক্তরাষ্ট্রকে হুশিয়ারি দিয়েছে সৌদি আরব। বলেছে, খাসোগিকে কেন্দ্র করে ওয়াশিংটন যদি রিয়াদের ওপর অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে, তাহলে তারা ছুরি মেরে নিজেদের অর্থনীতিকেই হত্যা করবে।

বেশি বাড়াবাড়ি করলে তেলের দাম বাড়ানো হবে। ডলার নয়, তেল বিক্রি করা হবে চীনা মুদ্রায়। এখানেই শেষ নয়। সামরিক চুক্তি বাতিল করা হবে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে। দেশের নিরাপত্তায় ডাকা হবে রাশিয়ার সেনা। সৌদির রাষ্ট্রীয় অর্থায়নে পরিচালিত সংবাদমাধ্যম আল-আরাবিয়ার এক নিবন্ধে এই হুশিয়ারি দেয়া হয়েছে।

আল-আরাবিয়ার মহাব্যবস্থাপক তুর্কি আদ-দাখিলের নিবন্ধটি রোববার প্রকাশ করা হয়।

সরকারি গণমাধ্যমের পাশাপাশি হুশিয়ারি অব্যাহত রেখেছেন সৌদি কর্মকর্তারা। তারা বলছেন, খাসোগিকে কেন্দ্র করে যদি রিয়াদের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়, সৌদি আরব পাল্টা ব্যবস্থা নেবে।

এক্ষেত্রে রিয়াদের হাতে ৩০টি অপশন রয়েছে। রোববার ওই মতামত কলামে আদ-দাখিল বলেন, যদি তেলের দাম ৮০ ডলারে ওঠে, তাহলে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প খ্যাপে যাবেন। তবে এ কথা উড়িয়ে দেয়া যায় না যে, তেলের দাম ১০০ কিংবা ২০০ ডলার কিংবা তার দ্বিগুণ হবে না।’

আদ-দাখিল আরও বলেন, মার্কিন নিষেধাজ্ঞা দিলে রিয়াদ ভূ-কৌশলগতভাবে আমেরিকার দিক থেকে মুখ ফিরিয়ে নিতে পারে এবং চীন, ইরান ও রাশিয়ার সঙ্গে মিত্রতা করতে পারে। এ কথাও উড়িয়ে দেয়া যায় না যে, মার্কিন নিষেধাজ্ঞার পাল্টা ব্যবস্থা হিসেবে তাবুকে রাশিয়ার সামরিক ঘাঁটি তৈরি হবে।

যুক্তরাষ্ট্র-সৌদির সম্পর্কে টানাপোড়েনের মধ্যে মঙ্গলবার রিয়াদ সফরে গেছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও। এদিন সৌদি বাদশাহ সালমান বিন আবদুল আজিজ ও যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের সঙ্গে বৈঠক করেন তিনি। বৈঠকে পম্পেওকে খাসোগি হত্যাকাণ্ডের সুষ্ঠু তদন্তের প্রতিশ্র“তি দেন বাদশাহ ও যুবরাজ।

শিগগিরই হত্যার কথা স্বীকার করবে রাজপরিবার

খাসোগির হত্যাকাণ্ডের কথা স্বীকার করার প্রস্তুতি নিয়েছে সৌদি আরব। তবে এই স্বীকারোক্তি হবে ‘ভিন্ন কায়দায়’। সৌদি সরকার শিগগিরই একটি তদন্ত রিপোর্ট প্রকাশ করবে এবং তাতে বলা হবে যে, তুরস্কের ইস্তাম্বুল শহরে সৌদি কনসুলেট ভবনে জিজ্ঞাসাবাদের সময় ‘দৈবক্রমে’ নিহত হয়েছেন খাসোগি, যা তারা চাননি। এক প্রতিবেদনে এমনটাই দাবি করেছে সিএনএন।

দুটি সূত্রের বরাত দিয়ে সোমবার প্রতিবেদনটি প্রকাশ করা হয়। একটি সূত্র বলেছে, কোনো স্বচ্ছ তদন্ত ছাড়াই সম্ভাব্য হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িতদের ওই রিপোর্টে দোষী সাব্যস্ত করা হবে। আরেকটি সূত্র বলেছে, এরই মধ্যে রিপোর্ট তৈরি হয়ে গেছে এবং সত্য ঘটনা উল্টে দেয়ার জন্যই এটা করা হয়েছে।

ট্যাগ: bdnewshour24 বাড়াবাড়ি রুশ সেনা সৌদি