banglanewspaper

আলফাজ সরকার আকাশ, শ্রীপুর (গাজীপুর) প্রতিনিধি: গাজীপুরের শ্রীপুর পৌর এলাকায় পরকীয়ার জেরে স্বামীর লিঙ্গ কাটার অভিযোগ উঠেছে স্ত্রীর বিরুদ্ধে। ১৮ই অক্টোবর রাত ২ টায় এ ঘটনা ঘটে বলে জানা যায়। স্বামী আমানুল্লাহ বাবুল পৌরসভার ২ নং ওয়ার্ড শ্রীপুর গ্রামের গরুহাটা এলাকার  শুক্কুর আলীর ছেলে।

প্রতিবেশীদের দেয়া তথ্যমতে জানা যায়, আমানুল্লা বাবুলের প্রথম স্ত্রী চলে যাওয়ার পর গত ২মাস আগে সুমাইয়া নামের আরেকজনকে বিয়ে করে। গত ১৮ তারিখ গভীর রাতে আমানুল্লা বাবুলের  বাড়ীতে ডাক চিৎকারের শব্দ শুনতে পেয়ে আমরা দৌড়ে যাই। ঘরের ভিতর গিয়ে দেখি বিছানার চাদরে রক্ত লেগে আছে। পাশে আমান উল্লাহ কাতরাচ্ছে। এসময় তার ভগ্নিপতি তাকে দ্রুতই শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরী বিভাগে নিয়ে যায়। সেখানে ঘটনার অবনতি হলে তাকে ময়মনসিংহ সদর হাসপাতালে রেফার্ড করে বলে আমরা জানতে পারি।

আমান উল্লাহর ভগ্নিপতি জানান, সুমাইয়ার পূর্বের স্বামীর সাথে পরকীয়া থাকায় মাঝে মধ্যেই তাদের মধ্যে ঝগড়া ফ্যাসাদ হতো। ঘটনার ওই রাতে ধাক্কাধাক্কির এক পর্যায়ে আমানুল্লা বাবুলের  সামান্য কেটে যায়। মান ইজ্জতের ভয়ে আমরা আইনের আশ্রয় নেই নাই। পরের দিন সুমাইয়া তার স্বামী আমানুল্লা বাবুলকে ডিভোর্স দিয়ে চলে গেছে।

এ ব্যাপারে আমানুল্লা বাবুলের মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি। শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কর্তব্যরত ডাক্তার জয়নব আক্তার জানান, ১৮ তারিখ রাত আড়াইটায় রক্তাক্ত অবস্থায় রোগীকে নিয়ে আসে। লিঙ্গের দুই স্থানে মারাক্তক কাটার জখম ছিল। আমরা প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়েছি। রোগীর অবস্থা গুরুতর হওয়ায় ময়মনসিংহ সদর হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়।

শ্রীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাবেদুল ইসলাম জানান, এ বিষয়ে কেউ কোন অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে আইনানুক ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

ট্যাগ: bdnewshour24 লিঙ্গ