banglanewspaper

ভালোবাসার জন্য রাজপরিবারের ছেড়ে দিলেন জাপানের রাজকুমারী আয়াকো। জাপানের রাজপরিবারের আইন অনুযায়ী রাজকুমারীকে বিয়ে করতে হয় পরিবারের সদস্যের মধ্যে, নয়তো তাকে রাজপরিবার ছাড়তে হয়। আর এ জন্যই রাজ পরিবার ছাড়তে হয়েছে আয়াকো।

রাজকুমারী আয়াকো বিয়ে করেছেন একজন সাধারণ নাগরিককে। তার নাম কেই মোরিয়া। যিনি একটি জাহাজ কোম্পানির কর্মচারী। সোমবার জাপানের টোকিও শহরের সম্রাট মেইজির মাজারে তাদের বিয়ে অনুষ্ঠিত হয়।

২৮ বছর বয়সী আয়াকো রাজপরিবারের সর্বশেষ সদস্য, যিনি সাধারণ নাগরিককে বিয়ে করে রাজপরিবার ছাড়লেন। মেয়ে হয়ে রাজপরিবারের বাইরে বিয়ে করায় জাপানের আইন অনুযায়ী আয়াকোর রাজকীয় পরিচয় হারাতে হলো।

বিয়ের পর এক সংবাদ সম্মেলনে আয়াকো বলেন, ‘মেইজি মাজারে এত মানুষ আমার বিয়েতে এসেছেন এবং আমাদের অভিনন্দন জানিয়েছেন, যাতে আমি খুব খুশি।’

বিয়েতে রাজকুমারী একটি লাল কিমোনো কোর্ট পরেন এবং রাজকীয় স্টাইলেই তার চুল বাঁধা ছিল। অপরদিকে নিপ্পন ইউসেনের কর্মচারী ৩২ বছর বয়সী মোরিয়া পরেন কালো কোর্ট।

সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপও হয় এ দম্পতির। এ সময় মোরিয়া জানান, ‘তিনি আয়াকোকে সাধারণ জীবন-যাপনে অভ্যস্ত হয়ে উঠতে সাহায্য করবেন।’ তিনি বলেন, ‘আমরা এক সঙ্গে কাজ করতে চাই, একে অপরের হাতে হাত রেখে একটি হাস্যোজ্জ্বল পরিবার তৈরি করতে চাই।’

মোরিয়া এবং আয়াকোর মায়েরাও ভালো বন্ধু ছিলেন। তাদের মাধ্যমেই এ দুজনের পরিচয় হয়। বিয়ের পর জাপানি প্রথা অনুযায়ী এখন রাজকুমারী আয়াকোর নাম আয়াকো মোরিয়া।

ট্যাগ: bdnewshour24 প্রেম রাজপরিবার ছাড়লেন রাজকুমারী