banglanewspaper

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সঙ্গে আগামীকাল বৃহস্পতিবারের সংলাপ নিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘আমাদের পক্ষ থেকে আমরা অত্যন্ত আন্তরিকতা ও খোলা মন নিয়ে সংলাপে বসব। সংলাপের মাধ্যমে গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের একটি পথ তৈরি হবে। সংলাপের বিষয়টি আন্তর্জাতিক মহলও বেশ ভালোভাবে নিয়েছে। তারা খুশি।’

আজ বুধবার সচিবালয়ে নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এ কথা বলেন।

এ সময় বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মামলার রায় সংলাপের ক্ষেত্রে কোনো বাধা নয় উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘মামলা ও সাজার বিষয়ে আইনি প্রক্রিয়া অনুসরণ করতে হবে।’

কাদের জানান, নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার আগে প্রস্তাব পেলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আরো কয়েকটি রাজনৈতিক দলের সঙ্গে সংলাপে বসতে পারেন। আর ঐক্যফ্রন্টের সঙ্গে সংলাপে প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ ও ১৪ দলের ২১ জন প্রতিনিধি অংশ নেবেন বলেও জানান তিনি।

আওয়ামী লীগ নেতারা নির্বাচন সামনে রেখে সংলাপের পক্ষে ছিলেন না জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সিদ্ধান্তেই সংলাপ হতে যাচ্ছে। কয়েক দিনের মধ্যেই নির্বাচনী তফসিল ঘোষিত হবে। তার আগে প্রস্তাব এলে ঐক্যফ্রন্ট ও যুক্তফ্রন্টের পরে আরো কয়েকটি রাজনৈতিক দলের সঙ্গে বৈঠক হতে পারে।

‘প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, তিনি অন্যান্য দলের সঙ্গেও সংলাপে বসতে রাজি। এখন আমরা দেখি, কারা কারা প্রস্তাব পাঠায়। সময়ও এখানে একটা ফ্যাক্টর। টাইম ফ্যাক্টরটা মাথায় রেখে, শিডিউলের বিষয় আছে, তার আগে যতটা সম্ভব কাভার করার ইচ্ছা আছে, প্রধানমন্ত্রী এ ব্যাপারে আন্তরিক,’ বলছিলেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।

খালেদা জিয়াকে কারাগারে রেখে সংলাপ ফলপ্রসূ হবে না, বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের মন্তব্য প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, মামলার রায় আইনি বিষয়। একে সংলাপের সঙ্গে সংযুক্ত করা ঠিক হবে না। সংলাপে ঐক্যফ্রন্টের সাত দফা দাবির বিষয়ে আওয়ামী লীগ তাদের যুক্তি তুলে ধরবে বলেও জানান তিনি।

‘রায়টা দিয়েছেন আদালত, লিগ্যাল ম্যাটারের সঙ্গে ডায়ালগের কোনো সম্পর্ক নাই। ডায়ালগ ডায়ালগের পথে চলবে। ডায়ালগে তারা খালেদা জিয়ার যে কনভিকশন, এসব নিয়ে তারা আলোচনা করতে পারবে না। আলোচনার পথে কোনো বাধা নেই। এখানে নট দ্যাট যে আওয়ামী লীগ তাঁকে (খালেদা জিয়া) জেলে দিচ্ছে, আওয়ামী লীগ তাঁকে মুক্তি দেবে। বিষয়টা তো এই নয়। এখন বিএনপিকে যেটা আদালতের রায়, সেখানে লিগ্যাল ব্যাটলে যেতে হবে।’

সংলাপের উদ্যোগ সম্পর্কে সমালোচনার জবাবে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী বলেন, বেশিরভাগ মানুষ এই উদ্যোগকে ইতিবাচকভাবেই নিয়েছে। আর বিদেশিরাও এই উদ্যোগের প্রসংশা করছে।

ব্রিফিংয়ের আগে ঢাকায় নিযুক্ত জার্মান ও ফরাসি রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে বৈঠক করেন ওবায়দুল কাদের।

আগামীকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৭টায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারি বাসভবন গণভবনে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সঙ্গে সংলাপ হবে। পরদিন শুক্রবার সন্ধ্যায় বিকল্পধারার সঙ্গে সংলাপে বসবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। 

এদিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সংলাপ করতে আজ দুপুরে চিঠি দিয়েছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ।

ট্যাগ: bdnewshour24 ওবায়দুল কাদের