banglanewspaper

রাজধানীর গুলশানে সাত বছরের মাদ্রাসার ছাত্রী ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। ধর্ষক রেজাউল করিম (২০) নামে এক তরুণকে আটক করেছে পুলিশ।

শনিবার (৩ অক্টোবর) বিকালে গুলশান থানার পুলিশ শিশুটিকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন। 

গুলশান থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. ফারুক পরিবারের বরাত দিয়ে বলেন, শুক্রবার রাতে কালাচাঁদপুর এলাকায় বাবার চায়ের দোকান থেকে বাসায় ফিরার পথে ঐ বাসারই এক তরুণ রেজাউল করিম (২০) শিশুটিকে মুখ চেপে বাসার বাথরুমে নিয়ে ছুরি দিয়ে ভয়ভীতি দেখায়ে জোরপূর্বক ধর্ষণের চেষ্টা করে, এ সময় তার চিৎকারে আশপাশের লোকজন এসে রেজাউলকে আটক করে শিশুটিকে উদ্ধার করেন। 

পরে সংবাদ পেয়ে রেজাউলকে আটক করে থানায় নেয়া হয়। শিশুটিকে শারীরিক পরীক্ষার জন্য ঢামেক হাসপাতালের ওয়ান স্টোপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) ভর্তি করা হয়। 
 
তিনি আরো বলেন,  শিশুটির বাবা চা দোকানি, ঘটনার সময় রাত ১২ টার দিকে শিশুটির মা চায়ের দোকানে সহযোগিতার জন্য গিয়েছিল। বাসার পাশেই দোকান। এর আগে শিশুটিকে বাসায় চলে যেতে বলে তার বাবা, আর বাসায় যাওয়ার পথেই ঐ বাসার আরেক বাসিন্দা লন্ড্রি দোকান কর্মচারী রেজাউল এ ঘটনা ঘটায়। শিশুটি স্থানীয় একটি মাদ্রাসায় পড়াশোনা করে। 

ট্যাগ: bdnewshour24 ধর্ষণ