banglanewspaper

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দ্বিতীয় দফার সংলাপে অনুপস্থিত থাকতে পারেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ও গণফোরামের সভাপতি ড. কামাল হোসেন। বুধবার ( ৭ নভেম্বর) সকাল সাড়ে ১১টায় গণভবনে সংলাপটি অনুষ্ঠিত হবার কথা রয়েছে।

ঐক্যফ্রন্টের একটি সূত্র জানিয়েছে, মঙ্গলবার (৬ নভেম্বর)  জনসভা করে ড. কামাল হোসেনের শরীর কিছুটা খারাপ হয়ে পড়ায় বুধবার তিনি সংলাপে যেতে পারছেন না।

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের স্টিয়ারিং কমিটির সদস্য ও গণফোরামের সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মহসিন মন্টু মঙ্গলবার সন্ধ্যায় গণমাধ্যমকে জানান, ড. কামাল হোসেন এর শরীরটা একটু খারাপ। আমরা এখন তাকে দেখতে যাচ্ছি, তার সঙ্গে পরামর্শ করতে। যদি শরীর ভালো থাকে তিনি যাবেন।

সংলাপে অংশগ্রহণের জন্য ঐক্যফ্রন্ট যে ১১ জনের তাম চূড়ান্ত করেছে সেখানে ড. কামাল হোসেনের নাম রয়েছে। তিনি অংশগ্রহণ করবেন বলেও জানিয়েছিলেন ঐক্যফ্রন্টের মুখপাত্র বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

সংলাপে যারা উপস্থিত থাকছেন তারা হলেন- বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, জেএসডির সভাপতি আসম আবদুর রব, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, গণফোরামের সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মহসীন মন্টু, নির্বাহী সভাপতি অ্যাডভোকেট সুব্রত চৌধুরী, জেএসডি সভাপতি সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মালেক রতন, ঐক্যপ্রক্রিয়ার নেতা সুলতান মোহাম্মদ মনসুর আহম্মেদ, ডা. জাহেদুর রহমান।

এর আগে, ১ নভেম্বর জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সঙ্গে সংলাপের মধ্য দিয়ে শুরু হয় এ আলোচনা। সংলাপে ঐক্যফ্রন্টের ২০ নেতা এবং আওয়ামী লীগ ও ১৪ দলের ২৩ জন নেতা উপস্থিত ছিলেন। সংলাপ থেকে বেরিয়ে ঐক্যফ্রন্ট নেতারা জানান, তারা এ সংলাপে সন্তষ্ট নয়। যদিও ক্ষমতাসীন দলের নেতারা দাবি করেন, সংলাপ ফলপ্রসূ হয়েছে।

ট্যাগ: bdnewshour24 সংলাপ ড. কামাল