banglanewspaper

পুরোনাম সায়রা আক্তার জাহান। শোবিজে সায়রা নামেই পরিচিত তিনি। ২০১৪ সালে মডেলিংয়ের মাধ্যমে মিডিয়াতে পথচলা শুরু। মিউজিক ভিডিও এবং কিছু সংখ্যক নাটকেও দেখা গেছে তাকে।

 

তবে এই মডেল-অভিনেত্রীর লক্ষ্য ছিল চলচ্চিত্রে কাজ করা। তিনি মনে প্রাণে চাইতেন চলচ্চিত্রে অভিনয় করতে। দেশ-বিদেশের বিভিন্ন ঘরানার চলচ্চিত্র উপভোগ করেন সায়রা। কোনও একটি গল্প নির্ভর চলচ্চিত্রে অভিনয়ের ইচ্ছে ছিল মনে।

 

আর এই স্বপ্নটি এত দ্রুত সত্যি হবে ভাবতেও পারেননি এই গ্লামারকন্যা। চলচ্চিত্র ‘সুতপার ঠিকানা’র নির্মাতা প্রসূন রহমান তার নতুন ছবির জন্য নায়িকা খুঁজছিলেন। পরিচালকের চাওয়া ‘জন্মভূমি- দ্য বার্থ ল্যান্ড’-এ খুব বেশি পরিচিত কাউকে নেবেন না। দর্শকদের কাছে চরিত্রটি বাস্তব সম্মত করার জন্য এমন ভাবনা পরিচালকের।

 

একদিন তিনি সায়রাকে মুঠোফোনে জানালেন, তার নতুন ছবির জন্য নায়িকা খুঁজছেন। মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে আসা এক গর্ভবতী নারীর চরিত্র এটি।

 

 

পরিচালকের কাছে ‘জন্মভূমি- দ্য বার্থ ল্যান্ড’র গল্প শুনেই কাজটি করতে রাজী হন ‘ছিপ নৌকো’ মিউজিক ভিডিওর মাধ্যমে আলোচনায় আসা সায়রা। তার ভাষ্য, প্রসূন রহমানের লেখার একজন ভক্ত তিনি। পরিচালকের ‘সুতপার ঠিকানা’ ছবিটিও তার দেখা। সবমিলে সিদ্ধান্ত নিতে একটুও দ্বিধাবোধ করেননি।

 

আর প্রসূন রহমান বলেন, সায়রা চট্টগ্রামের মেয়ে। তো সেখানকার ভাষায় সাথে মিয়ানমারের ভাষার কিছুটা মিল রয়েছে। আমার মনে হয়েছে কাজটি ওর (সায়রার) জন্য সহজ হবে।

 

তবে সায়রা বলেন, চট্টগ্রামের মেয়ে হলেও পরিবারের কেউই আমার সঙ্গে ওই ভাষায় কথা বলেন না। ফলে সেখানকার ভাষায় খুব একটা দক্ষতা নেই। যাই হোক না কেন, প্রসূন ভাই তো এই বিষয়টিকে গুরুত্ব দিয়ে আমাকে কাস্ট করেছেন (হাসি)।

 

তিনি আরও বলেন, আন্তর্জাতিক একটা ইস্যু নিয়ে ‘জন্মভূমি’ ছবিটি। আর এখানে কেন্দ্রীয় চরিত্রে কাজের সুযোগটা আমার কাছে স্বপ্নের মতো ছিল। আমার মধ্যে একটা বিষয় কাজ করতো যদি নিজের সেরাটা দিয়ে অভিনয় করি। ছবিটি মুক্তির পর শরণার্থীদের মানুষের মনে ভাবনা তৈরি হয়। এটাই আমার জীবনের সার্থকতা।

 

ক্যারিয়ারের প্রথম ছবি একটি গুরুত্বপূর্ণ ইস্যু নিয়ে। অভিনয় করে আপনি নিজে কতোটা তৃপ্ত। জবাবে সায়রা বলেন, বাস্তবধর্মী গল্প ও চরিত্র আমার পছন্দের। প্রতিটি মানুষের জীবনেই একটা গল্প থাকে। প্রত্যেকে তার কাছে নায়ক বা নায়িকা। ফলে চরিত্রটি একদিকে যেমন চ্যালেঞ্জ ছিল, আবার অভিনয় করে নিজের কাছেও মনে হয়েছে আমি কিছু একটা করতে পেরেছি।

 

‘জন্মভূমি’ ছবিতে সায়রার বিপরীতে রয়েছেন জনপ্রিয় অভিনেতা রওনক হাসান। সহঅভিনেতা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, রওনক ভাই কতো বড় মাপের একজন অভিনেতা কাজ করতে গিয়ে বুঝতে পেরেছি। অনেক সহযোগিতা পরায়ণ একজন মানুষ তিনি। তার কাছে অনেক শেখার আছে। শুটিংয়ে আমরা একটি পরিবারের মতো কাজটি করেছি।

 

 

দর্শকদের উদ্দেশে সায়রা বলেন, আমরা রোহিঙ্গা ক্যাম্প, পাহাড়, রোদে পুড়ে, বৃষ্টিতে ভিজে ছবিটিতে অভিনয় করেছি, শুধু একটা গল্প আপনাদের সামনে তুলে ধরার জন্য। শুক্রবার থেকে স্টার সিনেপ্লেক্সে জন্মভূমি ছবিটি প্রদর্শিত হচ্ছে। আপনারা সবাই হলে গিয়ে ছবিটি দেখবেন। আপনারা ছবিটি দেখলে আমাদের সবার পরিশ্রম সার্থক হবে।  

 

বেঙ্গল মাল্টিমিডিয়া প্রযোজিত ছবিটি রাজধানীর স্টার সিনেপ্লেক্সে শুক্রবার (১৪ ডিসেম্বর) থেকে প্রদর্শিত হচ্ছে। ছবিতে সায়রা-রওনক ছাড়া আরও অভিনয় করেছেন সঙ্গীতা চৌধুরী, অঙ্কন চাকমা, জয়নাল জ্যাক, পামেলা কেচার, নাসির উদ্দিনসহ অনেকে।  

ট্যাগ: bdnewshour24 সায়রা