banglanewspaper

মনির হোসেন জীবন, নিজস্ব প্রতিনিধি: গাজীপুর সিটি করপোরেশনের বাহাদুরপুর এলাকায় অপহরণের একদিন পর নিজ বাড়ির পিছন থেকে ইফতিয়াক হোসেন নিফাত (১১) নামের পঞ্চম শ্রেণীর এক ছাত্রের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। মুক্তিপণের টাকা না দেয়ার কারণেই তাকে হত্যা করা হয় বলে দাবী পরিবারের।

খবর পেয়ে পুলিশ নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করেছে।

নিহত নিফাত গাজীপুর মহানগরীর বাহাদুরপুর তুলসী ভিটা এলাকার হযরত আলীর ছেলে এবং সে ভাওয়াল মির্জাপুর পাবলিক স্কুল থেকে এ বছর পিএসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়ে জিপিএ-৫ পেয়েছিল।

নিহতের স্বজনদের বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, গতকাল বুধবার দুপুর ১২টার দিকে নিফাত বাড়ির পাশেই খেলাধুলা করছিল। পরে সে বাসায় না ফিরলে বাড়ির লোকজন নিফাতকে খোঁজাখুঁজি করেও কোথাও পায়নি। 

পরবর্তীতে অজ্ঞাত পরিচয়ের এক ব্যক্তি নিফাতের বাবার কাছে মোবাইল ফোনে তার ছেলেকে অপহরণের কথা জানায় এবং মুক্তিপণ বাবদ ৩০ লাখ টাকা দাবি করে। টাকা না দিলে এবং পুলিশে খবর দিলে ছেলের ক্ষতি হবে বলে হুমকি দেয়। এ ঘটনায় ওই দিনই গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের সদর থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়। 

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের সদর থানার ওসি সমীর চন্দ্র সূত্রধর সংবাদ মাধ্যমকে জানান, অপহরণের অভিযোগ পেয়ে পুলিশ শিশুটিকে উদ্ধার করতে গাজীপুরের বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়েছে। কিন্তু কোথাও তাকে পাওয়া যায়নি। আজ সকালে নিজ বাড়ির পাশ থেকে নিফাতের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। 

প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে যে, পারিবারিক শত্রুতার জেরে বাড়ির কাছেই কোথাও শিশুটিকে শ্বাসরোধে হত্যার পর দুর্বৃত্তরা বাড়ির পেছনে তার মরদেহ ফেলে রেখে গেছে।

ট্যাগ: bdnewshour24 গাজীপুর