banglanewspaper

রাজধানীর আদাবরে মিশন ইন্টারন্যাশনাল কলেজের প্রভাষক কৃষ্ণা কাবেরীকে হত্যার দায়ে গুলশানের ব্রোকারেজ হাউজ হাজী আহমেদ ব্রাদার্স সিকিউরিটিজের ব্যবস্থাপক কে এম জহিরুল ইসলাম পলাশকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

ঢাকার এক নম্বর দ্রুতবিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক শাহেদ নূর উদ্দিন আসামির অনুপস্থিতে এ রায় ঘোষণা করেন। এছাড়া, কৃষ্ণার স্বামী সীতাংশু ও দুই মেয়েকে হত্যাচেষ্টায় একই আসামিকে যাবজ্জীবন সাজা ও ৫০ হাজার টাকা জরিমানাও করেন আদালত। উভয় দণ্ড একই সাথে কার্যকর করার আদেশ দিয়েছেন আদালত। 

২০১৫ সালের ৩০ মার্চ সন্ধ্যায় রাজধানীর মোহাম্মদপুরের ৩/১২ ইকবাল রোডে নিজ বাসায় খুন হন বিআরটিএর উপ-পরিচালক সীতাংশু শেখর বিশ্বাসের স্ত্রী কৃষ্ণা কাবেরী বাইন। 

ওই ঘটনায় সীতাংশু শেখরের ভাই সুধাংশ শেখর মোহাম্মদপুর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলাটি তদন্ত করে গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) পরিদর্শক দেলোয়ার হোসেন ২০১৬ সালের ৩০ মে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। 

এতে বলা হয়, কৃষ্ণা কাবেরীর স্বামী সীতাংশু বিশ্বাস হাজী আহমেদ ব্রাদার্স সিকিউরিটিজের মাধ্যমে বিও অ্যাকাউন্ট খুলেছিলেন। সেখানে আট লাখ টাকা ছিল। শেয়ার ব্যবসার সূত্রেই পলাশের সঙ্গে সীতাংশুর পরিচয় হয়। সীতাংশুর শেয়ার আত্মসাৎ করার জন্য তাকে হত্যার চেষ্টা করেন পলাশ। সেই হামলায় কৃষ্ণার মৃত্যু হয়। 

গত বছরের ২০ এপ্রিল মামলার একমাত্র আসামি গুলশানের ব্রোকারেজ হাউজ হাজী আহমেদ ব্রাদার্স সিকিউরিটিজের ব্যবস্থাপক কে এম জহিরুল ইসলাম পলাশের বিরুদ্ধে চার্জ গঠন করে বিচার শুরু করেন আদালত। 

এতে মোট ২৩ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ করেন আদালত। আসামি হাইকোর্ট থেকে জামিন নিয়ে পলাতক রয়েছেন। 

ট্যাগ: bdnewshour24 কৃষ্ণা কাবেরী