banglanewspaper

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সাবেক এপিএস মিয়া নুরুদ্দিন অপুকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। নির্বাচনের আগে রাজধানীর মতিঝিল থেকে আট কোটি টাকা উদ্ধারের ঘটনায় অর্থপাচার ও সন্ত্রাসবিরোধী আইনের মামলায় তাকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব।

সদ্য সমাপ্ত জাতীয় নির্বাচনে শরীয়তপুর-৩ আসনে বিএনপির প্রার্থী ছিলেন অপু। নির্বাচনী প্রচারের শেষ দিকে শরীয়তপুরে এক সহিংসতায় তিনি আহত হয়ে রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। সেখান থেকেই বৃহস্পতিবার বিকালে র‌্যাব-১ অপুকে গ্রেপ্তার করে। তবে তিনি সেখানে র‌্যাবের পাহারায় চিকিৎসাধীন থাকবেন বলে বলে নিশ্চিত করেছেন র‌্যাব-১ এর অধিনায়ক সারোয়ার বিন কাশেম।

২৫ ডিসেম্বর ভোটের ৫ দিন আগে রাজধানীর মতিঝিলের সিটি সেন্টার থেকে প্রায় সাড়ে আট কোটি টাকা এবং ১০ কোটি টাকার চেকসহ তিনজনকে গ্রেপ্তার করেন র‌্যাব সদস্যরা। টাকাগুলো ‘একটি রাজনৈতিক দলের পক্ষে ভোট কেনার জন্য’ দুবাই থেকে বাংলাদেশে পাঠানো হয়েছে বলে সে সময় জানান র‌্যাব মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদ। যেসব স্থানে এই টাকা গেছে সেখানেই নির্বাচনী সহিংসতা হয়েছে বলেও জানিয়েছিলেন তিনি।

ওই ঘটনায় আমদানি-রফতানিকারক প্রতিষ্ঠান ইউনাইটেড করপোরেশনের এমডি আলী হায়দার, গুলশানের আমেনা এন্টারপ্রাইজের জিএম (এডমিন) জয়নাল আবেদিন ও অফিস সহকারি আলমগীর হোসেনকে আটকও করা হয়। এছাড়া ঘটনায় যুক্ত একজন হাওয়া ভবনে কাজ করত র‌্যাব ডিজি জানিয়েছিলেন।

র‌্যাব-১ এর অধিনায়ক সারোয়ার বিন কাশেম বলেন, ‘মিয়া নুরুদ্দীন অপুকে চার কোটি টাকা উদ্ধারের ঘটনায় চার নম্বর আসামী করা হয়েছিল। শুক্রবার বিকাল চারটায় ইউনাইটেড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তিনি হাসপাতালেই চিকিৎসাধীন।’

‘সেখান থেকে ছাড়পত্র পেলে তার বিরুদ্ধে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এই ব্যাপারে পরে বিস্তারিত আরো জানানো হবে।’

ট্যাগ: bdnewshour24 তারেকের এপিএস