banglanewspaper

মনির হোসেন জীবন, নিজস্ব প্রতিনিধি: আশুলিয়ার বিভিন্ন এলাকা থেকে এক ট্রাফিক পুলিশের স্ত্রী, খেলনা তৈরির কারখানার শ্রমিক, পোশাক কারখানার শ্রমিক ও অজ্ঞাত আরো এক যুবকসহ মোট ৪ জনের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

আজ বৃহস্পতিবার (১০ জানুয়ারি) সকালে আশুলিয়া থানার খেজুরবাগান, শ্রীপুর, কবিরপুর ও নবীনগর থেকে তাদের লাশ উদ্ধার করা হয়। এদের মধ্যে তিনজনের পরিচয় পাওয়া গেলেও বাকি একজনের পরিচয় পাওয়া যায়নি।

সকালে আশুলিয়ার শ্রীপুর এলাকার নিজ ভাড়া বাড়ির একটি কক্ষ থেকে সাভারে কর্মরত ট্রাফিক পুলিশ আইয়ুব আলীর স্ত্রী রেশমা খানম (২৬) এর লাশ উদ্ধার করে আশুলিয়া থানা পুলিশ।

অপরদিকে, আজ সকালে আশুলিয়ার খেজরবাগান এলাকায় সড়ক দূর্ঘটনায় রানা (১৬) নামের এক কিশোরের মৃত্যু হয়েছে। নিহত রানা ময়মনসিংহের গৌরীপুর থানাধীন নোয়াগাঁও এলাকার মৃত নাদের আলীর ছেলে এবং সে আশুলিয়ার খেজুরবাগান এলাকায় ভাড়া বাসায় থেকে টঙ্গাবাড়ি খেলনা কারখানায় চাকুরী করতো।

আশুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো: রফিক জানান, পরিবারের পক্ষ থেকে কোন অভিযোগ না থাকায় আবেদনের প্রেক্ষিতে মৃতদেহ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এদিকে, গতকাল রাতে আশুলিয়ার কবিরপুরে বাসের ধাক্কায় শামীম মোল্লা নামে এক পোশাক শ্রমিক নিহত হয়। নিহত শামীম মোল্ল্যা যশোরের চৌগাছা থানার দুলালপুর গ্রামের মো. আদিল হোসেনের ছেলে এবং সে আশুলিয়ার রুদমিলা নিটওয়ার নামে পোশাক কারখানার কাজ করতেন ও আশুলিয়ার বাড়ইপাড়া বসবাস করতেন।

হাইওয়ে থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) আনোয়ার হোসনে প্রত্যক্ষেদর্শীদের বরাত দিয়ে জানান, শামীম মোল্লা কবিরপুর থেকে মোটরসাইকেল যাওয়ার পথে পিছন থেকে পলাশ পরিবহনের দ্রুতগামী বাস তাকে ধাক্কা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই তিনি মারা যান। নিহতের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। পাশাপাশি ঘাতক চালক ও বাসটি আটকের চেষ্টা চলছে।

এছাড়া, আশুলিয়ার নবীনগর থেকে আজ সকালে আরো এক যুবকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। সেও সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত হয়েছে বলে জানা গেছে। তবে তার বিস্তারিত পরিচয় পাওয়া যায়নি।

ট্যাগ: bdnewshour24 আশুলিয়া