banglanewspaper

গোপালগঞ্জে যাত্রীবাহী বাস খাদে পড়ে বেসিক ব্যাংক কর্মকর্তাসহ দুইজন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও আট বাসযাত্রী। মঙ্গলবার সকালে গোপালগঞ্জ-কোটালীপাড়া সড়কের গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার খেলনা নামক স্থানে এই দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত দুইজন হলেন, বেসিক ব্যাংকের কোটালীপাড়া শাখার ক্যাশ অফিসার নুরুল ইসলাম (৪০), বাসযাত্রী মোমেনা বেগম (২৫)।

নিহত নুরুল ইসলাম গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার সুলতানশাহী গ্রামের মাজেদ মোল্লার ছেলে। তিনি গ্রামের বাড়ি থেকে কোটালীপাড়ায় তার কর্মস্থলে যাচ্ছিলেন।

আর অপর নিহত মোমেনা বেগম (২৫) পূর্ব কোটালীপাড়া এলাকার শহিদ মোল্লার স্ত্রী।

আহত  আটজনকে সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আহত বাসযাত্রীরা জানায়, বাসচালক খুবই কম বয়সী। মোবাইল ফোনে কথা বলতে বলতে তিনি বাসটি চালাচ্ছিলেন। এসময় হঠাৎ বাসটি রাস্তার খাদে পড়লে এ হতাহতের ঘটনা ঘটে।

গোপালঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুল ইসলাম জানান, মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে গোপালগঞ্জ থেকে ছেড়ে যাওয়া কোটালীপাড়ার পয়সারহাটগামী একটি যাত্রীবাহী লোকাল বাস ঘটনাস্থলে পৌঁছালে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশে খাঁদে পড়ে। এতে বাসটি দুমড়ে মুচড়ে গেলে অন্তত: ১০ যাত্রী আহত হয়।

পরে গোপালগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস, পুলিশ ও স্থানীয়দের সহায়তায় আহতদের গোপালগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে এলে কর্তব্যরত  চিকিৎসক বেসিক ব্যাংক কর্মকর্তা নুরুলসহ দুইজনকে মৃত ঘোষণা  করেন।

তিনি আরও বলেন, আহত যাত্রীদের সাথে কথা বলে জানা গেছে চালক মোবাইল ফোনে কথা বলতে বলতে গাড়ি চালাচ্ছিল। হঠাৎ করে বাসটি রাস্তার পাশে খাঁদে ফেলে দেয়।

দুর্ঘটনার পর চালক ও তার সহকারী পালিয়ে গেছেন। তাদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। নিহতদের পরিবারকে মামলা দিতে বলা হয়েছে। তারা মামলা না দিলেও পুলিশের পক্ষ থেকে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে তিনি জানান।

নিহতদের লাশ ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

ট্যাগ: bdnewshour24 মোবাইল