banglanewspaper

মুসলিম রোহিঙ্গাদের গৌরবের সঙ্গে ফেরত নিতে মিয়ানমারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থার বিশেষ দূত ও হলিউড অভিনেত্রী অ্যাঞ্জেলিনা জোলি।

বাংলাদেশ রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়ে উদারতার পরিচয় দিয়েছে বলেও মন্তব্য করেছেন তিনি।

বাংলাদেশকে ধন্যবাদ দিয়ে রোহিঙ্গা সঙ্কট মোকাবেলায় শুধু বাংলাদেশ নয়, বিশ্ব সম্প্রদায়ের সহযোগিতাও দরকার বলে মনে করেন অ্যাঞ্জেলিনা জোলি।

এ সময় রোহিঙ্গাদের মৌলিক চাহিদা পূরণে যে বিশাল অর্থ প্রয়োজন তার জন্য বিশ্বসম্প্রদায়কে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান তিনি।

প্রায় ১৩ হাজার কিলোমিটারেরও বেশি পথ পাড়ি দিয়ে মানবতার টানে অ্যাঞ্জেলিনা জোলি গতকাল সোমবার প্রথমবারের মতো বাংলাদেশে আসেন।

চার দিনের বাংলাদেশ সফরে এসে দ্বিতীয় দিন মঙ্গলবারও কক্সবাজারে কুতুপালংয়ে রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন করেন তিনি। এ সময় জনপ্রিয় হলিউড অভিনেত্রী কথা বলেছেন নির্যাতিত রোহিঙ্গাদের সঙ্গে। শুনেছেন তাদের ওপর মিয়ানমার সেনাবাহিনীর নির্মম নির্যাতনের কথা।


কেমন দেখলেন নির্যাতিতদের, আর সঙ্কট নিরসনে কি করা দরকার বিশ্ব সম্প্রদায়ের? এই নিয়ে কুতুপালংয়ে সংবাদ সম্মেলনে নিজের মতামত দেন জোলি।

রোহিঙ্গারা শরণার্থী শিবিরে মানবেতর জীবন কাটাচ্ছে। তাদের দ্রুত এবং গৌরবের সঙ্গে ফেরত নিতে মিয়ানমারের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

বিশ্ববিখ্যাত এই অভিনেত্রী বলেন, মানবিক সঙ্কটে রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়ে বাংলাদেশ উদারতার পরিচয় দিয়েছে। মানবতার প্রতি বাংলাদেশের এ উদারতা বিশ্বের অনন্য উদাহরণ হয়ে থাকবে।

তিনি বলেন, মিয়ানমারে রোহিঙ্গদের কোনো পরিচয় নেই। কোনো অধিকার নেই। বাংলাদেশ তাদের পরিচয় দিয়েছে। থাকার জায়গা দিয়েছে। রোহিঙ্গাদের পূর্ণ নাগরিকত্ব ও নিরাপত্তা দিয়ে মিয়ানমান ফেরত নেবে বলে আশা করেন জোলি।

রোহিঙ্গাদের অধিকারের মর্যাদা দেয়া ও সঙ্কট নিরসনে মিয়ানমার সরকারের পদক্ষেপ নেয়া দরকার বলে মত দেন তিনি।

জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থার বিশেষ দূত অ্যাঞ্জেলিনা জোলি জানান, বিশ্ব সম্প্রদায় এই সঙ্কট সমাধানে সর্বাত্বক সহায়তা করবেন।

রোহিঙ্গা শরণার্থীদের দেখতে জোলি সোমবার সকালে কক্সবাজার পৌঁছান। ওইদিন তিনি টেকনাফের চাকমারকুলে রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন করেন। আজ মঙ্গলবার কক্সবাজারের উখিয়ার কুতুপালংয়ে রোহিঙ্গা ক্যাস্প পরিদর্শন করেন তিনি।

এর আগে রোববার মধ্যরাতে চার দিনের সফরে ঢাকায় আসেন জোলি।

উল্লেখ্য, মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর নির্যাতনের শিকার প্রায় ১০ লাখ সংখ্যালঘু রোহিঙ্গা মুসলিম নাফ নদী পেরিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়। দুর্ভাগা রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেয়ায় বাংলাদেশ সরকারের প্রশংসা করছেন বিশ্বনেতা ও তারকারা। কিছুদিন আগেই ক্যাম্প পরিদর্শনে এসেছিলেন বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা চোপড়া।

ট্যাগ: bdnewshour24 বাংলাদেশ রোহিঙ্গা জোলি