banglanewspaper

নিউজিল্যান্ডের মাটিতে সিরিজকে সামনে রেখে আলাদভাবে কোনো প্রস্তুতির পরিকল্পনা নেই বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের। তবে এ নিয়ে ভাবছেন না টাইগারদের ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা।

ইতোমধ্যেই ৮ সদস্যের একটা দল পাড়ি জমিয়েছে নিউজিল্যান্ডে। বিপিএলের ফাইনাল শেষে স্কোয়াডে থাকা বাকি ক্রিকেটাররাও উড়াল দেবেন ট্রান্স-তাসমান পাড়ের দেশে। নিউজিল্যান্ডের কন্ডিশনের সঙ্গে মানিয়ে নিতে আগামী ১০ ফেব্রুয়ারি কেবল একটি ৫০ ওভারের প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে টাইগাররা।

নিউজিল্যান্ডে ওয়ানডে আর টেস্ট সিরিজ খেলবে বাংলাদেশ। ১৩ ফেব্রুয়ারি তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচ। অথচ গত কয়েকদিন টাইগাররা চর্চা করেছে টি-টোয়েন্টি। এক দিক থেকে এটাকে এক ধরণের প্রস্তুতি অবশ্য বলাই যায়। আর আদালাভাবে প্রস্তুতি নিলেই বা কী হবে? অতীত ইতিহাস তো বলছে, ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়েও নিউজিল্যান্ডের মাটিতে সফল হতে পারেনি বাংলাদেশ।

বছর দুয়েক আগে সিডনিতে ১০ দিনের প্রস্তুতি ক্যাম্প করে নিউজিল্যান্ড যান মাশরাফিরা। সেবার তিন ম্যাচের সিরিজে কিউইদের বিপক্ষে ম্যাচ জেতা দূরে থাক, প্রতিদ্বন্দ্বিতাও গড়ে তুলতে পারেনি তারা।

মাশরাফি তাই উদ্বেগহীন। অনেকটা মজা করেই ওয়ানডে অধিনায়ক বলেছেন, ‘প্রস্তুতি নিয়ে গিয়ে গতবার সফল হতে পারিনি। দেখি এবার কী হয়! এবার প্রস্তুতি ছাড়া যদি ভালো কিছু করি, তাহলে পরেরবার প্রস্তুতি ছাড়াই যাব।’

সে যাই হোক, বিদেশের মাটিতে সাফল্য কুড়াতে নিজেদের সর্বোচ্চটা ঢেলে দিয়েই লড়বেন মাশরাফিরা, ‘বিপিএল চলছিল, কিছু তো করার নেই। আমাদের খাপ খাইয়ে নিতে হবে। খারাপ হলে সবাই সমালোচনা করবে আর ভালো হলে প্রশংসা। তবে অবশ্যই জেতার চেষ্টা করবো। নিজেদের সেরাটাই খেলব আমরা।’

নিউজিল্যান্ডের মাটিতে এখন পর্যন্ত তিনটি দ্বিপাক্ষিক ওয়ানডে সিরিজ খেলেছে বাংলাদেশ। ৯ ম্যাচের সবকটিতে হার। টেস্টেও একই চিত্র। চারটি সিরিজের ৭ ম্যাচের সবগুলোতেই পরাজিত হয়েছে টাইগাররা। 

পরাজয়ের বৃত্ত থেকে বেরিয়ে আসতে দৃঢ় প্রতিজ্ঞ মাশরাফি। তবে খুব বেশি আশা দেখাচ্ছেন না তিনি, ‘বেশি আশা কাউকে দিব না। অবশ্যই আমি অনেক ইতিবাচক। পূর্ণ আত্মবিশ্বাস নিয়ে খেলবো। আগের নিউজিল্যান্ড সফরে আমরা একটি ম্যাচে জয়ের কাছাকাছি ছিলাম। ২৫১ রানে তাদের অলআউট করি। ইমরুল ও সাব্বিরের জুটি একশর মতো হয়েছিল, কিন্তু তারপর ধস। খুব ভালো একটা সুযোগ আমরা পেয়েছিলাম, হাতছাড়া করেছি। আশা করব এবার সুযোগগুলো কাজে লাগাতে পারবো। কেউ জানে না কী হতে পারে। তবে সিরিজটা আমাদের জন্য সহজ হবে না।’

সবশেষে বিশ্বকাপ প্রস্তুতির কথা জানালেন মাশরাফি। জানালেন, নিউজিল্যান্ড সিরিজই হবে আসন্ন ওয়ানডে বিশ্বকাপের জন্য বাংলাদেশের আদর্শ প্রস্তুতি। এর আগে প্রধান কোচ স্টিভ রোডসও এমনটা বলেছিলেন। 

এ প্রসঙ্গে মাশরাফি বলেছেন, ‘আমরা এই সিরিজকে বিশ্বকাপের জন্য ভালো প্রস্তুতি হিসেবে দেখছি। সামনের ৫-৬ মাস যদি দেখেন, এটা (নিউজিল্যান্ড) প্রস্তুতির জন্য খুব আদর্শ কন্ডিশন।’

ট্যাগ: bdnewshour24 মাশরাফি