banglanewspaper

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও উত্তর কোরীয় নেতা কিম জং উনের মধ্যকার আসন্ন দ্বিতীয় দফা সম্মেলনের প্রস্তুতি শেষে যুক্তরাষ্ট্রের ফেরত গেছেন পিয়ংইয়ংয়ে নিযুক্ত মার্কিন দূত। তিন দিনব্যাপী আলোচনা শেষে দেশে ফিরেছেন তিনি। খবর বিবিসির।

শনিবার (৯ ফেব্রুয়ারি) মার্কিন কর্মকর্তারা জানিয়েছে, খুব শিগগিরই আবারও উত্তর কোরীয় কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলোচনায় বসবেন মার্কিন দূত স্টিফেন বেইগান।

ট্রাম্প নিশ্চিত করেছেন যে, তিনি চলতি মাসের ২৭-২৮ তারিখ কিমের সঙ্গে ভিয়েতনামের হানোইতে বৈঠকে বসবেন।

ট্রাম্প বলেছেন, তার প্রতিনিধি উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে একটি ফলপ্রসূ বৈঠক করেছেন ও তিনি শান্তি অর্জনের অপেক্ষায় রয়েছেন।

যুক্তরাষ্ট্রের নিযুক্ত উত্তর কোরীয় রাষ্ট্রদূত কিম হিয়ক-চলের সঙ্গে পিয়ংইয়ংয়ে বৈঠক করেছেন বেইগান। তার দু’জন ট্রাম্প-কিমের সিঙ্গাপুর সম্মেলনে করা, সম্পূর্ণ পারমাণবিক নিরস্ত্রীকরণের প্রতিশ্রুতি পূরণ নিয়ে আলোচনা করেছেন। চলতি মাসে ট্রাম্প-কিমের বৈঠকের আগে আরও একবার আলোচনায় বসবেন তারা।

এদিকে যুক্তরাষ্ট্রে ফেরত যাওয়ার আগে হিয়ক-চলের সঙ্গে তার বৈঠক নিয়ে দক্ষিণ কোরীয় কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলেন বেইগান।

বেইগান বলেন, আমি আত্মবিশ্বাসী যে উভয় পক্ষই তাদের প্রতিশ্রুতি রক্ষা করবে। আমরা সত্যিকারের অগ্রগতি করতে পারবো।

তিনি আরও বলেন, উত্তর করিয়ার সঙ্গে আমাদের এখনো কিছু কাজ করা বাকি রয়েছে।
এদিকে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প শনিবার এক টুইটে বলেছেন, কিম জং উনের নেতৃত্বে উত্তর কোরিয়া একটি শক্তিশালী অর্থনৈতিক শক্তিতে পরিণত হবে। এটা আমার কাছে অপ্রত্যাশিত নয়। কেননা আমি তাকে চিনি ও পুরোপুরি বুঝি তিনি কতটুকু সক্ষম।

ট্যাগ: bdnewshour24 ট্রাম্প কিম