banglanewspaper

আজ রোববার থেকে ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের মধ্যে আনুষ্ঠানিক প্রচারণা শুরু হচ্ছে। ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি) ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি) নির্বাচনে প্রার্থীদের মাঝে প্রতীক বরাদ্দের মধ্য দিয়ে এই প্রচারণা শুরু হয়েছে।
আজ রোববার সকাল পৌনে এগারটায় ডিএনসিসির উপনির্বাচনে মেয়র প্রার্থীদের মধ্যে প্রতীক বরাদ্দ করেছেন রিটার্নিং কর্মকর্তা আবুল কাসেম। মেয়র পদে আওয়ামী লীগের প্রার্থী মোঃ আতিকুল ইসলাম নৌকা, জাতীয় পার্টির শাফিন আহমেদ লাঙ্গল, ড. ফেরদৌস আহমদ কোরেশীর প্রগতিশীল গণতান্ত্রিক দল (পিডিপি) থেকে শাহিন খান বাঘ, ন্যাশনাল পিপলস পার্টির (এনপিপি) আনিসুর রহমান দেওয়ান আম ও স্বতন্ত্র প্রার্থী নর্থ সাউথ প্রপার্টিজ লিমিটেডের চেয়ারম্যান মো. আব্দুর রহিম টেবিল ঘড়ি প্রতীক পেয়েছেন।

তবে, কাউন্সিলর পদে প্রার্থীদের মাঝে প্রতীক বরাদ্দ চলছে। ডিএনসিসি ও ডিএসসিসি রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয় বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।
এ ব্যাপারে রিটার্নিং কর্মকর্তা আবুল কাসেম প্রতীক বরাদ্দ শেষে সাংবাদিকদের বলেন, ‘সব প্রার্থীরা নির্বাচনের আচরণবিধি মেনে আজ থেকেই প্রচারণায় অংশ নিতে পারবেন।’

তিনি আরও বলেন, ‘প্রচারণা করা যাবে আগামী ২৬ ফেব্রুয়ারি মধ্য রাত ১২টা পর্যন্ত।’
ঢাকা উত্তর সিটির ২০টি সাধারণ ওয়ার্ডে ৪০ জন ও সংরক্ষিত ৬টি ওয়ার্ডে ১ জন এবং ঢাকা দক্ষিণ সিটির ১৮টি ওয়ার্ডে ২৬ জন ও সংরক্ষিত ৬টি ওয়ার্ডে ১ জন প্রার্থীতা প্রত্যাহার করেছেন। ফলে, চূড়ান্তভাবে ডিএনসিসিতে ২০টি সাধারণ ওয়ার্ডে কাউন্সিলর প্রার্থী ১২০ জন এবং ৬টি সংরক্ষিত ওয়ার্ডে নারী কাউন্সিলর প্রার্থী ৪৪ জন। বিপরীতে ডিএসসিসি‘র ১৮টি সাধারণ ওয়ার্ডে কাউন্সিলর প্রার্থী ১২৩ জন এবং ৬টি সংরক্ষিত ওয়ার্ডে নারী কাউন্সিলর প্রার্থী ২৪ জন।
এদিকে, ডিএনসিসি ও ডিএসসিসি নির্বাচনে ৩৮ সাধারণ ওয়ার্ডের কাউন্সিল পদে মোট প্রার্থীর সংখ্যা ২৪৩ জন। দুই সিটিতে ১২টি সংরক্ষিত ওয়ার্ডের নারী কাউন্সিল পদে প্রার্থীর সংখ্যা ৬৮ জন।
উল্লেখ্য, ২০১৫ সালের ২৮ এপ্রিল ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। কিন্তু নির্বাচনের আড়াই বছর পর ২০১৭ সালের ৩০ নভেম্বর চিকিৎসাধীন অবস্থায় মেয়র আনিসুল হক লন্ডনে মারা যান। এতে করে আসনটি শূন্য হয়ে পড়ে।

অন্যদিকে, দুই সিটিতে ২০১৭ সালে ১৮টি করে ৩৬টি নতুন ওয়ার্ড যুক্ত হলে এই ওয়ার্ডগুলোতে নির্বাচন করা হচ্ছে। মেয়র পদে শূন্য আসনে উপনির্বাচন ৩৬টি নতুন ওয়ার্ডে সাধারণ নির্বাচন করতে ২০১৮ সালের ৯ জানুয়ারি ইসি ডিএনসিসি নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করে। ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী গত বছরের ২৬ ফেব্রুয়ারি ভোট গ্রহণের কথা ছিল। কিন্তু গত বছরের ১৭ জানুয়ারি এই নির্বাচন তিন মাসের জন্য স্থগিতের আদেশ দেন হাইকোর্টের একটি বেঞ্চ। চলতি বছরের ১৬ জানুয়ারি স্থগিতের আদেশ খারিজ করে দেন হাইকোর্ট। এরপর গত ২২ জানুয়ারি ইসি নতুন তফসিল ঘোষণা করে।

ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি ডিএনসিসি মেয়র ও দুই সিটির ১৮টি করে ৩৬টি ওয়ার্ডে সাধারণ নির্বাচন। শনিবার ছিল প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র বাছাইয়ের শেষ দিন। আজ ১০ ফেব্রুয়ারি প্রার্থীদের মাঝে প্রতীক বরাদ্দ করা হয়।

ট্যাগ: bdnewshour24 ডিএনসিসি ডিএসসিসি